banglanewspaper

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, বঙ্গবন্ধুর আদর্শে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জনতার জন্যে কাজ করা এশিয়া তথা বিশ্বের সর্ব বৃহৎ ছাত্র সংগঠন। অকুতোভয় সেনানীদের নিয়ে গড়ে উঠা এই ছাত্র সংগঠনের রয়েছে গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস এবং বর্তমান।

বাংলার স্বাধীন স্বাধিকার আন্দোলনের সুত্র থেকে শুরু করে স্বৈরশাসক হঠানো এবং পাকিস্তানী চক্রকে প্রতিহত করার মত স্বদেশীয় আন্দোলনে এরা রেখেছিল বিপ্লবী ভূমিকা। বাংলার স্বাধীনতার লাল সবুজকে বশে আনতে এই ছাত্র সংগঠনের প্রায় সতের হাজার (১৭,০০০) নেতাকর্মী বুকের তাজা রক্ত ঢেলে হয়েছিল শহীদ। আর আমৃত্যু পঙ্গুত্ব বরেছিল আরো প্রায় অসংখ্যজন।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ শুধু অতীতের সুখ স্মৃতি আঁকড়ে খালি বর্তমান নিয়ে পথ চলে না। আর তাই অতীতের ন্যায় বর্তমানেও এই ছাত্রসংগঠনটি চলছে দূর্বার গতিতে। জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলার স্বপ্ন বাস্তবায়নে এগিয়ে চলেছে সমানে সমানে।

শিক্ষাঙ্গনকে আরো শিক্ষা বান্ধব করে তোলার লক্ষ্যে করেছে "ক্লিন ক্যাম্পাস সেভ ক্যাম্পাসের" মত পরিবেশবান্ধব ক্রিয়া, ভর্তি পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের আসন খোঁজায় সহযোগিতায় শিক্ষার্থী বুথ, শিক্ষার্থীদের মাঝে ইতিহাস সচেতনতা বৃদ্ধিতে হলে হলে পাঠ্য কার্যক্রম চালু এবং নববর্ষে বাংলার অহিংস-অসাম্প্রদায়িক জনতার সার্বিক সহযোগিতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি আবিদ আল হাসান এবং সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স ভাইয়ের মুঠোফোন নাম্বার সম্বলিত মোড়ে মোড়ে ব্যানার।

শুধু তাই নয় ক্যাম্পাস পরিচ্ছন্ন রাখার অংশ হিসেবে ব্যক্তিগত সকল ব্যানার, ফেস্টুন সরানোর উদ্যোগ নিয়ে তাকে সফল করে তুলেছেন। নিত্য নতুন কর্ম পন্থা উদ্ভাবন এবং তাকে সফল করার উদ্যোগ হিসেবে এবারে প্রথম চালু করেছে হল সম্মেলন। উৎসব এবং ঘটা করে এই সম্মেলন করার অর্থ একটাই স্বচ্ছতা এবং সকলের মাঝে হল কমিটিগুলোকে আরো গ্রহণযোগ্য করে তোলা।

এ লেখার মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হল কমিটির সম্ভাবনাময়ী ভবিষ্যতদের জন্যে শুভ কামনা রইবে। পাশাপাশি অন্যদের জন্যেও রইবে শুভ কামনা।

বর্তমানে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ছাত্র-জনতার কাতারে থেকে পরিবর্তনের সুরে কাজ করে যাবার চেষ্টা করছে। তবে এরপরও হয়তো গুটি কয়েক এই ছাত্রসংগঠনের সমালোচনা করতে পারেন। তাদের উদ্দেশ্যে, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ নিয়মিত ছাত্রদের নিয়ে গড়ে উঠা একটি ছাত্র সংগঠন। কাজেই এঁদের নিয়ে এমনভাবে মন্তব্য বা উক্তি করবেন না যেন এঁরা কাজ করার আগ্রহ হারিয়ে ফেলে।

মন্তব্যকারীদের শুভ বুদ্ধির উদয় হোক এবং এগিয়ে চলুক বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।

হায়দার মোহাম্মাদ জিতু

সাংগঠনিক সম্পাদক
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।

 

 

(এ বিভাগে প্রকাশিত মতামত লেখকের নিজস্ব। বাংলাদেশ নিউজ আওয়ার-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে প্রকাশিত মতামত সামঞ্জস্যপূর্ণ নাও হতে পারে।)

ট্যাগ: