ডেস্ক রিপোর্ট: অসাম্প্রদায়িক চেতনার সুরস্রষ্টা চারণকবি কবিয়াল বিজয় সরকারের ৩১তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। বার্ধ্যকজনিত কারণে ১৯৮৫ সালের ৪ ডিসেম্বর ভারতে পরলোকগমন করেন কবিয়াল বিজয় সরকার।

পশ্চিমবঙ্গের কেউটিয়ায় তাকে সমাহিত করা হয়। গুণী এই শিল্পী ২০১৩ সালে মরণোত্তর একুশে পদকে ভূষিত হন। ১৯০৩ সালে নড়াইল সদর উপজেলার ডুমদি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। এ উপলক্ষে নড়াইলে বিজয় সরকার ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে জেলা শিল্পকলা একাডেমি চত্বরে দিনব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

প্রকৃত নাম বিজয় অধিকারী হলেও সুর, সঙ্গীতের জন্য ‘সরকার’ উপাধি লাভ করেন। বিজয় সরকারের বাবার নাম নবকৃষ্ণ অধিকারী ও মা হিমালয়া দেবী। বিজয় সরকার নবম শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া করেন। মতান্তরে মেট্রিক (এসএসসি) পর্যন্ত। বিজয় সরকারের দুই স্ত্রী-বীণাপানি ও প্রমোদা অধিকারীর কেউই বেঁচে নেই।

সন্তানদের মধ্যে কাজল অধিকারী ও বাদল অধিকারী এবং মেয়ে বুলবুলি অধিকারী ভারতের পশ্চিমবঙ্গে বসবাস করছেন। বিজয় সরকার তার জীবদ্দশায় প্রায় ১হাজার ৮শ’ গান লিখেছেন এবং সুর করেছেন। বিজয় সরকারের এই পৃথিবী যেমন আছে, তেমনিই ঠিক রবে সুন্দর এই পৃথিবী ছেড়ে একদিন চলে যেতে হবে...। নবী নামের নৌকা গড়, আল্লাহ নামের পাল খাটাও বিসমিল্লাহ বলিয়া মোমিন কূলের তরী খুলে দাও... কিংবা আল্লাহ রসূল বল মোমিন, আল্লাহ রসূল বল এবার দূরে ফেলে মায়ার বোঝা সোজা পথে  চলো.. পোষা পাখি উড়ে যাবে সজনী, ওরে একদিন ভাবি নাই মনে সে আমারে ভুলবে কেমনে... ইত্যাদি গান বিখ্যাত হয়ে আছে।