banglanewspaper

ডেস্ক রিপোর্ট: রাজধানীর বিভিন্ন কাঁচাবাজারে শীতকালীন সবজির দাম কমেছে আরও। গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে কোন কোন সবজি কেজিতে ১০ টাকা পর্যন্ত কমেছে। তবে ঢেঁরস, পটলসহ দু’একটি সবজি চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে। শুক্রবার রাজধানীর কাওরানবাজার ও শান্তিনগরবাজারে খোঁজ নিয়ে সবজির দামের এ চিত্র পাওয়া যায়।

ব্যবসায়ীরা জানান, উত্তরাঞ্চলসহ দেশের বিভিন্ন সবজির মোকামে শীতকালীন সবজি এখন বিক্রি হচ্ছে অনেকটা পানির দরে। এর প্রভাব পড়েছে রাজধানীর বাজারগুলোতে।

শুক্রবার বাজারে বিভিন্ন ধরনের সবজির মধ্যে প্রতি কেজি শিম মানভেদে ২৫ থেকে ৩০ টাকা, বেগুন ৩০ থেকে ৩৫ টাকা, আলু ১৫ থেকে ২২ টাকা, টমেটো ৩০ থেকে ৩৫ টাকা, মূলা ২০ টাকা, কচুর লতি ৩৫ থেকে ৪০ টাকা, পেঁপে ২০ থেকে ২৫ টাকা, গাজার ৩০ থেকে ৩৫ টাকা, শালগম ২০ থেকে ২৫ টাকা, শশা ৩৫ থেকে ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া ফুলকপি ও বাঁধাকপি প্রতিটি ২০ থেকে ২৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

তবে চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে করল্লা, ঢেঁরস ও পটল। শুক্রবার বাজারে প্রতি কেজি করল্লা ৪০ থেকে ৫৫ টাকা, ঢেঁরস ৬০ থেকে ৬৫ টাকা ও পটল ৭৫ থেকে ৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে শান্তিনগরবাজারের সবজি বিক্রেতা বেলায়েত বলেন- ঢেঁরস, পটল, করল্লাতো শীতকালীন সবজি না। এ সময় এসব সবজির উৎপাদন তুলনামূলক কম হয়। এজন্য দাম বেশী।

শীতকালীন সবজির পাশাপাশি দাম কমেছে কাঁচামরিচ ও দেশী পেঁয়াজের। কেজিতে ১০ টাকা কমে শুক্রবার বাজারে প্রতি কেজি কাঁচামরিচ ৩০ টাকায় ও কেজিতে ৫ টাকা কমে দেশি পেঁয়াজ ২০ থেকে ৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া আমদানিকৃত পেঁয়াজ ২০ থেকে ২৫ টাকা, দেশি রসুন ১৬০ থেকে ১৭০ টাকা এবং আমদানিকৃত রসুন ১৮০ থেকে ২০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। দাম বেড়েছে আদার। মানভেদে কেজিতে ১০ থেকে ২০ টাকা বেড়ে আদা বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ১৪০ টাকায়।

নিত্য প্রয়োজনীয় অন্যান্য পণ্যের মধ্যে বোতলজাত সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ৯৫ থেকে ১০২ টাকা এবং খোলা সয়াবিন তেল কেজি প্রতি ৮০ থেকে ৯০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া প্রতি কেজি দেশি মসুর ডাল ১২৫ থেকে ১৩৫ টাকা, তুরস্ক/কানাড়ার বড়দানা মসুর ডাল ৯০ থেকে ১০৫ টাকা, মাঝারিদানা মসুর ডাল ১১০ থেকে ১২০ টাকা, মুগ ডাল ৮০ থেকে ১১৫ টাকা, ছোলা ৮৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে ৫/৬ দিনের ব্যবধানে দাম বেড়েছে ব্রয়লার মুরগীর। কেজিতে ১০ টাকা বেড়ে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হচ্ছে ১৫৫ থেকে ১৬৫ টাকা। এছাড়া লেয়ার মুরগি ১৬০ টাকা ও পাকিস্তানি লাল মুরগি আকারভেদে ২৫০ থেকে ২৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। মাংসের মধ্যে প্রতি কেজি গরু ৪৩০ টাকা এবং খাসির মাংস ৬২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

ট্যাগ: