লালমনিরহাট প্রতিনিধি॥ রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. ফিরোজ সালাহউদ্দিন সোমবার সকালে লালমনিরহাট জেলা প্রশাসন আয়োজিত উন্নয়ন মেলা ২০১৭’র র‌্যালিতে অংশ নেন।

র‌্যালি শেষে তিনি পশ্চিমাঞ্চলীয় রেলওয়ে বিভাগের লালমনিরহাটের বন্ধ হয়ে যাওয়া মোগলহাট রেলওয়ে ষ্টেশন পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে তিনি রেলওয়ে বিভাগীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের জানান, রেলপথের অরক্ষিত রেলক্রসিং গুলোতে যাতে দুর্ঘটনা না ঘটে সেজন্য জনবল নিয়োগ করা হবে। সেই সাথে রেলের বেহাত হওয়া জমিগুলো উদ্ধার করা হবে। যাত্রীসেবার মান বাড়াতে চলমান ট্রেনগুলোতে নতুন বগি সংযোজন করে হবে। এক সময়ে জেলার রেলপথ বুড়িমারী ও মোগলহাট হয়ে ভারতের সাথে সংযোগ ছিল। তখন এ এলাকায় অনেক ব্যবসা বানিজ্য হতো। কিন্ত বর্তমানে এগুলো বন্ধ থাকায় এ অঞ্চলের মানুষ অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে আছে। এ জন্যই সরেজমিনে পরিদর্শন করা। রেল কর্তৃপক্ষ এগুলো চালুর উদ্যোগ নেয়ার পরিকল্পনা করছে।


মোগলহাট থেকে ফিরে দুপুরের পর রেলওয়ে বিভাগীয় ম্যানেজারের সম্মেলন কক্ষে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে লালমনিরহাটে রেলের সেবার মান উন্নয়ন কল্পে লালমনিরহাট উন্নয়ন আন্দোলন পরিষদ সচিব বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেন।


তাছাড়াও সম্প্রতি ইজারা নেয়া রেলবাজারের ড্রাইভারপাড়া ও সিটি কলেজ মাঠের দোকান বরাদ্দ পাওয়া মালিক সাখাওয়াত হোসেনের নের্তৃত্বে ব্যবসায়ীগন সচিব মহোদয়ের সঙ্গে দেখা করে অবিলম্বে জমির দখল বুঝে দেওয়ার অনুরোধ জানান। এসময় ব্যবসায়ীরা বলেন, আমরা বিভিন্ন ব্যাংক ও সংস্থা থেকে ঋণ গ্রহন করে জামানতের টাকা জমা দিয়েছি। অথচ দীর্ঘ সময় পেরিয়ে গেলেও জমির দখল দেয়া হচ্ছে না। আমরা দ্রুত এর সমাধান চাই। 


এসময় তার সাথে পশ্চিমাঞ্চলীয় রেলওয়ে বিভাগের জেনারেল ম্যানেজার খায়রুল আলম, লালমনিরহাটের ডিআরএম মোহাম্মদ নাজমুল ইসলামসহ রেলওয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।