স্পোর্টস ডেস্ক: কি দুরুনই না কেটেছে  ২০১৬ সালটা। সত্যিই স্বপ্ন ছোঁয়ার মধ্যেই মতোই মেসি, নেইমার, সুয়ারেজকে হটিয়ে এবারের ফিফা বর্ষসেরা হয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর। অর্জন ছিলো আকাশ ছোঁয়া। উয়েফা চ্যাম্পিয়নশিপের সঙ্গে ইতিহাসে প্রথমবারেরমত নিজের দেশ পর্তুগালকে উপহার দিয়েছেন ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা। জিতেছেন ইউরোপিয়ান সুপার কাপ এবং ক্লাব বিশ্বকাপের শিরোপাও।

এত এত অর্জন যার নামের পাশে, তাকেই ফিফা বর্ষসেরা পুরস্কারের জন্য বেছে নিয়েছেন সারা বিশ্বের ফুটবল দলগুলোর কোচ-অধিনায়ক এবং নির্বাচিত সাংবাদিকরা। লিওনেল মেসি এবং আন্তোনিও গ্রিজম্যানকে পেছনে ফেলে ফিফা বর্ষসেরার পুরস্কার জিতেছেন রিয়ালের পর্তুগিজ তারকা।



জুরিখে ফিফা সদর দপ্তরে জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে রোনালদোর হাতে বর্ষসেরার পুরস্কার তুলে দেয়া হয়। এ নিয়ে চতুর্থবার ফিফা বর্ষসেরার পুরস্কার জিতলেন রোনালদো। তার প্রতিদ্বন্দ্বী লিওনেল মেসি জিতেছেন পাঁচবার। রিয়াল এবং বার্সার এই দুই তারকাই গত ৯ বছর ফিফা বর্ষসেরার পুরস্কারটি ভাগাভাগি করে নিচ্ছেন।

পুরস্কার জয়ের আগেই রোনালদো নিজের বক্তব্যে বলেন, ‘এটা সত্যিই এক অসাধারণ অনুভুতি। গত বছর পুরোটা সময় আমি বলে আসছিলাম, এই বছরটা আমার জন্য স্পেশাল, একটি স্বপ্নের বছর। এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। রিয়াল মাদ্রিদ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছে। জাতীয় দল জিতেছে ইউরোপিয়ান কাপ। সত্যি অবিশ্বাস্য একটি মৌসুম। আমি সত্যিই গর্বিত।’

ক্লাব এবং দেশের হয়ে গত বছর ৫৯টি গোল করেছেন রোনালদো। যা তার ক্যারিয়ারকে পৌঁছে দিয়েছে নতুন এক উচ্চতায়। ইউরোর ফাইনালে ইনজুরিতে আক্রান্ত হয়ে মাঠ থেকে উঠে গেলেও পরে তিনি অবতীর্ণ হন কোচের ভুমিকায়। এরপর এডেরের গোলে শিরোপা জয় করে পর্তুগাল। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে টাইব্রেকারে জয়সূচক গোলটি করেন রোনালদোই।