শরীয়তপুর প্রতিনিধি: শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার বড়কান্দি ইউনিয়নে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বোমা হামলায় হোসেন খাঁ (৩২) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ১০ জন।

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) সকাল ৬টার দিকে বড়কান্দি ইউনিয়নের খলিফা কান্দি গ্রামে এই হামলার ঘটনা ঘটে। নিহত হোসেন উপজেলার বড়কান্দি ইউনিয়নের মীর আলী মাদবর কান্দি গ্রামের মৃত জলিল খাঁর ছেলে।

পুলিশ জানায়, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে বড়কান্দি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) বর্তমান চেয়ারম্যান সিরাজ সরদার ও সাবেক চেয়ারম্যান শফি খলিফার মধ্যে বিরোধ চলছে। এনিয়ে একাধিকবার উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও হত্যার ঘটনা ঘটে। এর জের ধরে মঙ্গলবার সকালে উভয়পক্ষ আবারো সংঘষে জড়িয়ে পড়ে। এসময় প্রতিপক্ষের ছোড়া বোমা বিস্ফোরণে ঘটনাস্থলেই শফি খফিলার পক্ষের হোসেনের মৃত্যু হয়।

আহতদের মধ্যে জাহাঙ্গীর মাদরব, ইলিয়াস দড়ি, নুরু মিয়া খাঁ, নুর হোসেন খাঁ, সেকান্দার চৈয়াল ও রজব আলী মাদবরকে প্রথমে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় পরে এদের মধ্যে জাহাঙ্গীর, ইলিয়াস ও নুরু মিয়াকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় বেশকিছু বাড়িঘর ভাঙচুর ও লুটপাট করা হয়।

শফি খলিফা বলেন, চেয়ারম্যান সিরাজ সরদারের ভাই তোতা সরদার ও ভাতিজা মাসুদ সরদারের নেতৃত্বে স্থানীয় ও বহিরাগত সন্ত্রাসীরা আমাদের বাড়িতে বোমা হামলা করে। বোমায় আমার পক্ষের হোসেন ঘটনাস্থলেই মারা গেছেন। এর আগে রাতে আমার ভাতিজা আবদুর রাজ্জাক খলিফাকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেন তারা। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচার দাবি করছি।

জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নজরুল ইসলাম বলেন, বোমা হামলায় একজন নিহত হয়েছেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।