banglanewspaper

এম.এ মুছা, ঢাকা: বিশ্বখ্যাত পদার্থ বিজ্ঞানী স্টিফেন হকিংয়ের পৃথিবী নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী হলো, পৃথিবী একদিন শুক্র গ্রহের মতো উত্তপ্ত গ্রহে পরিণত হবে। মাটির নিচের জীবাশ্ম পুড়িয়ে পরিবেশ নষ্টের দরুণ অতি সত্ত্বর পৃথিবীর জলবায়ু ২৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেড়ে সমুদ্রের পানি ফুটে একটা গরম প্লেটে পরিণত হবে। তখন পৃথিবীকে নিষিদ্ধ গ্রহ ঘোষণা করে অন্য গ্রহের তালাশ করতে হবে।

এতো বড় চিন্তা না করে যদি আমরা শুধু ঢাকা শহরের পরিবেশ নিয়ে ভাবি তাহলে ঢাকাকে পরিত্যক্তের কাতারে দেখতে পাই। প্রতিটি নগরী গড়ে ওঠে উর্বর নদী এলাকার ওপর নির্ভর করে। নদীই যদি বিলু্প্ত হয়ে যায় তবে আপনা আপনি শহরও বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়বে। 

নগরবিদদের ভবিষ্যদ্বাণী হলো, অপরিকল্পিত নগরায়ন আর অপ্রতিরুদ্ধগতিতে নদী ভরাটের ফলে দেশের বৃহৎ নগরী ঢাকা তার স্বাভাবিক প্রাকৃতিক পরিবেশ হারিয়ে ফেলছে। এভাবে আর কিছুদিন চলতে থাকলে স্টিফেন হকিংয়ের পৃথিবী ভবিষ্যদ্বাণীর মতো ঢাকাকে পরিত্যক্ত ঘোষণা করে অন্যত্র রাজধানী শহর খোঁজতে হবে। 

২৭০ বর্গ কিলোমিটারের ঢাকাতে প্রায় ২ কোটি মানুষের বসবাস। এই ঘনবসতিপূর্ণ নগরীকে আরো ঘন করেছে সীমাহীন গাড়ির বোঝা। নগর বিশেষজ্ঞদের মতে, একটি আদর্শ নগরীতে মোট আয়তনের ২৫ শতাংশ সড়ক থাকতে হয়। ঢাকায় রয়েছে মাত্র ৭ শতাংশ।

 এ দিকে আন্তর্জাতিক মানদণ্ড অনুযায়ী, রাজধানীর রাস্তায় সর্বোচ্চ দুই লাখ ১৬ হাজার গাড়ি চলতে পারে। অথচ সেখানে  বিআরটিএর পরিসংখ্যান মতে, ২০১০ সাল পর্যন্ত ঢাকায় নিবন্ধিত হয়েছে পাঁচ লাখ ৯৩ হাজার ৭৭টি গাড়ি। 

এমতাবস্থায় ক্রমবর্ধমান মানুষের বোঝা, অপর্যাপ্ত রাস্তায় মাত্রারিক্ত গাড়ির চাপে আপাতত ঢাকাকে অঘোষিত নিষিদ্ধ নগরী বলা যায়।  

দীর্ঘদিন থেকে ঢাকা শহরের প্রাণ নদীগুলোকে ভোগ-দখল করে ভরাট করায় পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে। প্রবল বৃষ্টির পানিতে রাস্তা-ঘাটসহ ভবনগুলো কানায় কানায় পানি ভরে রাজধানী এখন কৃত্রিম বন্যা দুর্গত এলাকার নাম। নগরীটির পরিবেশ নিয়ন্ত্রণে নগর কর্তৃপক্ষ ক্রমে অক্ষম হয়ে পড়ছে।

নগরবিদদের নগর পরিবেশ বিষয়ক এমন অশনি সংকেত মুহূর্তে ঢাকার চরম বিপর্যয়ের লাগাম নিয়ন্ত্রণে না আনতে পারলে অদূর ভবিষ্যতে ব্যস্ত শহরটিকে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের মুখে “নিষিদ্ধ শহর” রিপোর্ট শোনার প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে হবে।

(এ বিভাগে প্রকাশিত মতামত লেখকের নিজস্ব। বাংলাদেশ নিউজ আওয়ার-এর সম্পাদকীয় নীতির সঙ্গে প্রকাশিত মতামত সামঞ্জস্যপূর্ণ নাও হতে পারে।)

ট্যাগ: