banglanewspaper

পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া ও নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠী অধ্যুষিত এলাকাগুলোর লোকজনের মাঝে পুস্তিকা আকারে একটি প্রচারপত্র বিলি করেছে ইসলামিক স্টেট (আইএস) বা সাবেক ইসলামিক স্টেট অব ইরাক এন্ড আল শাম (আইএসআইএস)।

তবে বিশেষভাবে আফগান শরণার্থী ক্যাম্পের লোকজনের মাঝে এসব পুস্তিকা বেশি বিলি করা হয়েছে বলে বৃহস্পতিবার জানিয়েছে দ্য ডন।

পশতু ও দারি ভাষায় লিখিত ওই পুস্তিকাটির নাম রাখা হয়েছে ‘ফাতেহ’ বা ‘বিজয়’। পুস্তিকাটির প্রচ্ছদে আইএস’র কালো পতাকা ও কালাশিনিকভ রাইফেলের ছবি দেয়া হয়েছে।

এই পুস্তিকাটি আফগানিস্তানের কয়েকটি এলাকায়ও বিলি করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রগুলো জানিয়েছে, এক আফগান নাগরিকের নেতৃ্ত্বাধীন উৎসাহীদের একটি ছোট দল পুস্তিকাগুলো বিলি করেছে।

পুস্তিকাটিতে ইরাক ও সিরিয়ার বিশাল এলাকা দখল করে নেয়া আইএস’কে সমর্থন দেয়ার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, সিরিয়া ও ইরাকে ঘোষিত খিলাফত খুরাসান পর্যন্ত বিস্তৃত করা হবে। এই খুরাসানের মধ্যে পাকিস্তান, ইরান, আফগানিস্তান এবং মধ্য এশিয়ার দেশগুলো অন্তর্ভুক্ত।

পাকিস্তানের এক নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন, পাকিস্তানে আইএস অনুমোদিত গোষ্ঠীর আবির্ভাব ঘটলেও দেশটির জঙ্গিবাদী তৎপরতায় তেমন বড় ধরনের কোনো পরিবর্তন ঘটবে না বলেই মনে করেন তিনি।

তিনি জানান, স্থানীয় জঙ্গিরা আফগান তালেবান নেতা মোল্লা ওমরকে মানেন ও তাকে ‘আমিরুল মোমেনিন’ বলে মনে করেন। এ কারণে আইএস এ অঞ্চলের জঙ্গিদের মধ্যে তেমন জনপ্রিয় হবে না বলেই মনে করেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, আল কায়েদা এই এলাকায় অনেকদিন ধরে কাজ করছে এবং এই এলাকায় তাদের মিত্রও রয়েছে। আল কায়েদা কখনোই আইএস’কে এখানে জায়গা করতে দেবে না।