banglanewspaper

ডেস্ক রিপোর্ট: এবার মোদি হাওয়ায় ভাঙতে চলছে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের দল তৃণমূর কংগ্র্রসের। ত্রিপুরার ৬ জন তৃণমূল বিধায়ক তাঁদের সমর্থকদের নিয়ে আগামী সোমবার যোগ দিচ্ছেন বিজেপিতে। এর আগে তাঁরাই তৃণমূলের সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে এনডিএ মনোনীত রামনাথ কোবিন্দকে ভোট দিয়েছিলেন। খবর; এবেলা।

গতকাল শনিবার তাঁরা দিল্লিতে বিজেপির জাতীয় সভাপতি অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করেন। তাঁরাই এবার ৭ আগস্ট ত্রিপুরায় একটি জনসভায় বিজেপিতে যোগদান করবেন। বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রাম মাধব, আসামের অর্থমন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান, বিজেপি ত্রিপুরা রাজ্য সভাপতি সুনীল দেওধার সেই জনসভায় উপস্থিত থাকবেন।

বামদের হাত থেকে ত্রিপুরা ছিনিয়ে নেওয়ার যে স্বপ্ন মমতা দেখেছিলেন, তা নিঃসন্দেহে ধাক্কা খেল। তবে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের সময়ই ত্রিপুরায় তৃণমূল বিধায়কদের মীরা কুমারকে সমর্থন না করার সিদ্ধান্তেই দলে ভাঙন স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল। কারণ তখন দলীয় বিধায়করা দাবি করেছিলেন, তাঁরা কোন ভাবে বাম সমর্থিত প্রার্থীকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোট দেবেন না।

তখনই তৃণমূল নেতৃত্ব জানিয়ে দিয়েছিল, বিজেপির কাছে নিজেদের বিকিয়ে দিয়েছেন এই বিধায়করা।

দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, ত্রিপুরার ৫ জন বিধায়ক কংগ্রেস থেকে তৃণমূলে এসেছেন, তাঁরা আমাদের প্রতীকে জেতেননি। নিজে নিজে সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন। আমরা এই সিদ্ধান্তের সম্পূর্ণ বিরোধী।

বিদ্রোহী তৃণমূল বিধায়কদের মধ্যে রয়েছেন ত্রিপুরা বিধানসভার সাবেক বিরোধী দলনেতা সুদীপ রায়বর্মনও। তিনি ও তাঁর সহযোগীরা ২০১৬ সালে বাম ও কংগ্রেসের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় সমঝোতা হওয়ায় দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন।

ট্যাগ: