banglanewspaper

জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।

শুক্রবার বিকেলে টোকিওতে তাদের এই সাক্ষাৎ হয় বলে সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশ সফরকালে আতিথেয়তা এবং নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্যপদের প্রার্থিতা প্রত্যাহারের জন্য বাংলাদেশ সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান আবে।

জাপানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ সফরকালে সেদেশের মানুষের প্রাণশক্তি গভীরভাবে প্রত্যক্ষ করার সুযোগ হয়েছে তার।

এসময় শিরীন শারমিন চৌধুরী বিশ্বব্যাপী নারীর ক্ষমতায়নে জাপানের অঙ্গীকার ও সক্রিয় ভূমিকার প্রশংসা করেন। তিনি ২০২০ সালের মধ্যে জাপানের নারী নেতৃত্বের হার শতকরা ৩০ ভাগে উন্নীত করার উদ্যোগের জন্য জাপানের প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করেন।

নারীর ক্ষমতায়ন বিষয়ে একটি সম্মেলনে যোগ দিতে জাপানের প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে বৃহস্পতিবার টোকিও যান শিরীন শারমিন। আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

জাপান পার্লামেন্ট ডায়েটের নিম্নকক্ষ হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের স্পিকার বুনমেই ইবুকির সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেছেন তিনি।

সংসদ সচিবালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়,সাক্ষাতের সময় উভয়েই দুই দেশের ‘সর্বাত্মক অংশীদারিত্ব’ কার্যক্রমের উদ্বোধনকে স্বাগত জানান।

জাপান পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ হাউস অব কাউন্সিলরসের প্রেসিডেন্ট মাসাকি ইয়ামাজাকির সঙ্গে তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করেন বাংলাদেশের স্পিকার। ইয়ামাজাকি নারীর ক্ষমতায়ন ও লৈঙ্গিক সমতায় বাংলাদেশের সাফল্যের প্রশংসা করেন।

এছাড়া বাংলাদেশের স্পিকারের সম্মানে জাপান-বাংলাদেশ সংসদীয় মৈত্রী লীগের মধ্যাহ্ন ভোজে অংশ নেন শিরীন শারমিন। মৈত্রী লীগের ডেপুটি ভাইস চেয়ারম্যান কাওয়ামোরা ও সেক্রেটারি জেনারেল ইচিরো সুকাডা এ মধ্যাহ্নভোজে উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগ: