নিজস্ব প্রতিনিধিঃ দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার ফটো সাংবাদিককে মারধর করার অভিযোগে মুস্তাইন নামের এক ট্রাফিক সার্জেন্টকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। ওই ফটো সাংবাদিকের নাম নাসির উদ্দিন। বুধবার বিকেল ৪টায় রাজধানীর মৎস ভবনের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

ফটোসাংবাদিক নাছির উদ্দিন বলেন, বিকাল চারটার পর প্রেসক্লাব থেকে অফিসিয়াল দায়িত্ব পালন শেষে অফিসে ফিরছিলাম। মৎস্য ভবনের সামনে আসার পর সার্জেন্ট মুস্তাইন আমার মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে হেলমেট কোথায় জানতে চায়। আমি তাকে বলি গত তিনদিন আগে আমার হেলমেট চুরি হয়ে গেছে। বেতন পেলেই হেলমেট কিনব। এ কথা শুনে মুস্তাইন আমাকে বলেন আপনারা হলুদ সাংবাদিক। কথায় কথায় শুধু মিথ্যা বলেন।

এরপর তিনি আমার বিরুদ্ধে একটি মামলা দেন। এ কথা বলতেই, সার্জেন্ট মুস্তাইন ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে বলে, ঠিক বেঠিক তোরে জিগাইতে হইব না। আর গালাগালি করতে থাকে। পরে ক্যামেরা বের করতেই সার্জেন্ট গলায় ও বুকে ধরে মারধর করে ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়।

নাছির উদ্দিন আরও জানান, ওই সময় ক্যামেরা বের করে ছবি তুলতে গেলে সার্জেন্ট মুস্তাইন আমাকে চড়থাপ্পড় ও মারধর শুরু করে। এক পর্যায়ে তিনি গেঞ্জি ধরে আমাকে মৎস্য ভবনের সামনে ট্রাফিক পুলিশ বক্সে নিয়ে যান। ওই সময়ে মুস্তাইন ট্রাফিক ইন্সপেক্টর আবদুল খালেকের সামনেও আমাকে একটি চড় মারে। খবর পেয়ে আমার সহকর্মীরা আমাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ঢাকা মহানগর ট্রাফিক পুলিশের দক্ষিণ বিভাগের উপ কমিশনার রিফাত রহমান শামীম বলেন, সার্জেন্ট মুস্তাইনকে সাময়িকভাবে ক্লোজড করা হয়েছে। এছাড়াও এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। পরবর্তীতে প্রতিবেদন মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এবং এই বিষয়ে ডিএমপি’র নিউজ পোর্টালে নিউজও করা হয়েছে।