banglanewspaper

মাল্টার কাছে গত সপ্তাহে ফেরিডুবে প্রায় পাঁচশ অভিবাসীর মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে।

সাঁতরে তীরে ওঠা এক ব্যক্তি এ কথা জানিয়েছেন। তার দাবি তাদের জাহাজ ইচ্ছা করে ডুবিয়ে দেয়া হয়েছিল।

সেপ্টেম্বরের শুরুর দিকে মিশরের দামিয়েত্তা থেকে ছেড়ে আসে ফেরিটি। অন্য একটি নৌকার ধাক্কায় এটি ডুবে যায়। অভিবাসীদের জন্য আন্তর্জাতিক সংস্থা জানায়, দুর্ঘটনার পর বেঁচে যাওয়া দুজনকে বৃহস্পতিবার উদ্ধার করা হয়েছে।

বেঁচে যাওয়া ব্যক্তিদের দাবি, পাচারকারীরা তাদের ফেরি ইচ্ছা করে ডুবিয়ে দিয়েছে। এতে নারী এবং শিশুও ছিল।

মাল্টায় ফেরিডুবির পাশাপাশি লিবিয়ার উপকূলেও অন্য একটি নৌকা ডুবির খবর প্রকাশ পেয়েছে। ওই নৌকায় প্রায় ২৫০ জন যাত্রী ছিলো যাদের ২০০ জনের বেশি ডুবে মারা গেছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

রাজনৈতিক পরিবেশ উত্তপ্ত হওয়ায় সাম্প্রতিক বছরগুলোতে উত্তর আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্য থেকে প্রচুর মানুষ অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে নৌপথে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে পৌঁছানোর চেষ্টা করছে।

এসব মানুষকে বহনকারী নৌযানগুলো বেশিরভাগ সময় খুবই নড়বড়ে অবস্থায় থাকে এবং অতিরিক্ত যাত্রী বহন করে। ফলে সেগুলো প্রায় ডুবে গিয়ে ব্যাপক প্রাণহানির ঘটনা ঘটে।

ট্যাগ: