banglanewspaper

ডেস্ক রিপোর্ট : আইনস্টাইন ১৯২২ সালে জাপানে গিয়েছিলেন বক্তৃতা দিতে। সেখানেই কাকতালীয়ভাবে লেখেন সুখ সম্পর্কে নোট। সেই 'সুখের সূত্র' ৯৫ বছর পর আবারও জনসমক্ষে এসেছে। ইসরায়েলের জেরুজালেমে আইনস্টাইনের হাতে লেখা সে নোট নিলামে বিক্রি হয়েছে। তাও আবার ১৫ লাখ ডলারে যা বাংলাদেশি টাকায় ১২ কোটি ৪২ লাখ ৩৭ হাজার টাকায়।

বিবিসি’র এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৯২২ সালে জাপানে এক বক্তৃতা ট্যুরে টোকিওর ইম্পেরিয়াল হোটেলে ছিলেন আইনস্টাইন। সে সময় এক জাপানি বার্তাবাহক তার কাছে বার্তা নিয়ে আসে। সাধারণত কেউ বার্তা নিয়ে এলে তাকে কিছু বকশিশ দিতে হয়। ধারণা করা হয়, আইনস্টাইন বার্তা বাহককে বকশিশ দিতে চাইলেও তা নিতে চাননি ওই বার্তা বাহক অথবা আইনস্টাইনের কাছে খুচরা ছিল না। তখন হয়তো দ্রুত কয়েকটি বাক্য লিখে দেন সেই বার্তা বাহককে।

ওই নোট বার্তা বাহককে দেওয়ার সময় আইনস্টাইন বলেছিলেন, যদি তুমি ভাগ্যবান হও, এ নোটগুলো সাধারণ বকশিশের চেয়ে বেশি দামি হবে। একটি নোটে লেখা ছিল, ‘নিত্য অস্থিরতাযুক্ত সফল জীবনের চেয়ে প্রশান্ত ও পরিমিত জীবন অধিক আনন্দ নিয়ে আসে।’

আরেকটি সাদা কাগজের ওপর লিখে দিয়েছিলেন, ‘ইচ্ছা থাকিলে উপায় হয়’ এ কথাটি। নিলামে এটি বিক্রি হয় দুই লাখ চল্লিশ হাজার ডলারে।

আইনস্টাইনের নোট দুটি এত দিন ছিল জার্মানির হামবুর্গের এক ব্যক্তির কাছে। জানা যায়, জেরুজালেমের উইনার অকশান হাউসে মূল্যবান সম্পদ হয়ে ওঠা নোট দুটি নিলামে তুলেন সেই বার্তাবাহকের ভাতিজা।

ট্যাগ: