banglanewspaper

সকল ক্লান্তি সঁপেছি রেওয়াজে ,
আজ চুমু দিও না 
লাল টকটকে লিপিষ্টিকে মিশিয়েছে হেমলক 
যতবার হাসছি ফলা ফলা হচ্ছি ।
জোৎস্নায় ফেরা হলো না আর 
সঘন চুমোয় ভরিয়ে দিও 
কফিনের ঢাকনা খুলে ....
সুখ দেখবার আগে, চক্ষু উপড়ে নিয়েছে 
দানব চিলে ।

কালো চশমায় আড়াল করেছি 
আলুথালু রক্ত রস,
বড় পিপাসা কাতর নাভিতে 
ফুটো করে রিং দিলো ঝুলিয়ে 
যদি মন চায় গোপন সুন্দর দেখিও 
কফিনের ঢাকনা খুলে ।

আই ফোনে সন্দেশ পাঠিয়েছে 
সব দেহ চায় , 
দিতে হবে দিতে হবে, দিতেই তো হবে ।
গলাবন্ধে পশমী চাদরে ফাঁস এঁটে
মৃত্যু আলিঙ্গন করলে 
কপালে চাঁদের টিপ দিও 
কানে ঢেলে দিও দু ফোঁটা মান্না দে 
কফিনের ঢাকনা খুলে ।

জাকারান্ডার নীচে নিহত হবো
তাই ভেবে মাতি কাঁচা তেঁতুল লবন মরিচ চটকে 
জিভে জল থৈ থৈ সুখে ,
বড় আদরে ছিলাম হিংসায়ও কম নয় ।

আমাকে মনে করে 
ফিরোজ যৌবনের প্রথম মৈথুনে আহা !
তাকে কালো মেয়ের মুখটা দেখিও
কফিনের ঢাকনা খুলে। 

 

কবি-
নাজমীন মর্তুজা। 

ট্যাগ: