banglanewspaper

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিজ্ঞানের এই যুগে সেন্সরের ব্যবহার প্রায় সকল কিছুতেই দেখা যায়। তবে যন্ত্রের নানাবিধ প্রয়োজন মেটাতে ভিন্ন ভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যবহার হচ্ছে সেন্সর। তবে সেন্সরের ব্যবহার যন্ত্র থেকে বেরিয়ে এবার চিকিৎসা শাস্ত্রে ঢুকে পড়েছে।

প্রশ্ন হচ্ছে কীভাবে? চিকিৎসা শাস্ত্রে একটি ট্যাবলেট উদ্ভাবন করেছে যেটিতে রয়েছে হজমযোগ্য সেন্সর। এবিলিপাইম্যাকসাইট অ্যারিপিপ্রাজোল নামে ওই ট্যাবলেটটি মানসিক রোগের জন্য ব্যবহার হয়। ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী, রোগী যদি ওষুধ খায় অথবা খাওয়া থেকে বিরত থাকে তবে চিকিৎসকরা তা জানতে পারবেন।

এই প্রক্রিয়ায় রোগীর শরীরে একটি প্যাঁচ পরানো থাকবে, যার মাধ্যমে রোগীর শরীরে ওষুধের ক্রিয়াকর্মের তথ্য রোগির মোবাইল ফোনে পাঠাতে পারবে। রোগীর অনুমতি সাপেক্ষে সেই তথ্য তার চিকিৎসকের কাছেও চলে যাবে বলে বিবিসি বাংলার খবরে বলা হয়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এর ফলে রোগীদের ওষুধ সেবন শৃঙ্খলা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে। এই ট্যাবলেটের ভেতরে একটি বালুকনার সাইজে একটি সেন্সর রয়েছে যেটি পাকস্থলীর রসের সাথে সংস্পর্শের সাথে সাথে কার্যকরী হয়ে হয়ে উঠবে। এর ফলে ৩০ মিনিট থেকে দুই ঘণ্টার ভেতর বাইরে থেকে বোঝা যাবে ওষুধটি শরীরে ঢুকেছে কী ঢোকেনি।

যুক্তরাষ্ট্রে এই প্রথম সেন্সরযুক্ত ট্যাবলেট বিক্রির জন্য অনুমোদন দেয়া হয়েছে। মার্কিন খাদ্য এবং ওষুধ প্রশাসনের কর্মকর্তা মিচেল ম্যাটিস বলছেন, মানসিক রোগীদের ওষুধ খাওয়া নজরদারি করা গেলে অন্যান্য রোগীদের জন্যও এই প্রক্রিয়া কাজে লাগতে পারে।

তিনি বলেন, রোগী এবং চিকিৎসকদের সুবিধায় প্রযুক্তির প্রয়োগ তারা সবসময় উৎসাহিত করবেন।

ট্যাগ: