banglanewspaper

ডেস্ক রিপোর্ট: এবার র‌্যাম্বো খ্যাত হলিউড অভিনেতা সিলভেস্টার স্ট্যালোনের বিরুদ্ধে এক ষোড়শীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ উঠল। স্ট্যালোন ও তার বডিগার্ড ১৯৮০-র দশকে তার এক ১৬ বছর বয়সী ভক্তকে ধর্ষণ করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

এমনকি ধর্ষনের পর কাউকে সে ঘটনার কথা বললে ওই কিশোরীকে পিটিয়ে মাথা ভেঙ্গে দেওয়ারও হুমকি দেন তিনি।

তবে এই অভিনেতার এক মুখপাত্র বলেছেন, অভিযোগটি হাস্যকর এবং মিথ্যা। কিন্তু এই বিষয়ে ১৯৮৬ সালের একটি পুলিশ রিপোর্ট ব্রিটেনের ডেইলি মেইল অনলাইনের হাতে এসেছে। বিষয়টি এতদিন গোপনই রয়ে গিয়েছিল। সম্প্রতি বিষয়টি ফাঁস হয়।

বলা হচ্ছে ঘটনাটি ঘটেছে ১৯৮৬ সালে লাস ভেগাস হিলটনে। পুলিশের রিপোর্ট অনুযায়ী নাম প্রকাশ না করা ওই কিশোরী ঘটনার দিন তার পরিবারের সঙ্গে ওই হোটেলে ছিলেন। এসময় স্ট্যালোনের বডিগার্ড তাকে স্ট্যালোনের হোটেল রুমের চাবি দিয়েছিল।

সেখাসে স্ট্যালোনের সঙ্গে যৌন মিলনের পর স্ট্যালোনের বডিগার্ডের সঙ্গেও তাকে যৌন মিলন করতে হয়।

তবে তাকে গায়ের জোরে করে যৌন মিলনে বাধ্য করা না হলেও তিনি আতঙ্কিত হয়েই তা করেছিলেন।

ওই কিশোরী বলেন, বডিগার্ডের সঙ্গে তার যৌন মিলনের কোনো ইচ্ছা ছিল না। তথাপি তিনি তা করতে বাধ্য হয়েছিলেন।

ওই ঘটনার পর স্ট্যালোন তাকে বলেন, তারা দুজনেই বিবাহিত পুরুষ। সুতরাং তার উচিত হবে না কাউকে বিষয়টি জানানো। যদি সে কারো কাছে একথা বলে তাহলে তার মাথা পিটিয়ে ভেঙে দেওয়া হবে।

পুলিশ জানায়, ওই নারী অভিযোগ করার সময় খুবই আবেগতাড়িত হয়ে পড়েছিলেন। এবং কোনো চিন্তা ঠিকভাবে প্রকাশ করতে পারছিলেন না। পরে তিনি স্ট্যালোন এবং তার বডিগার্ড ডে লুকার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ দায়ের করতে চাননি। ওই ঘটনায় তিনি লজ্জিত এবং অপদস্থ বোধ করেন।

স্ট্যালোনের বডিগার্ড সাবেক বক্সার ডে লুকা ২০১৩ সালে ক্যালিফোর্নিয়ায় পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছেন।

স্ট্যালোনের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ এমন এক সময়ে প্রকাশিত হল যখন ইতিমধ্যেই হলিউডের আরো একাধিক বিনোদন ব্যক্তিত্বের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ এসেছে।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান

ট্যাগ: