banglanewspaper

মোঃ সাব্বির আহমাদ আবীর, জাককানইবি প্রতিনিধি : ১১ ডিসেম্বর (শনিবার) দুপুরে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদে বদলি পরীক্ষার্থীর মাধ্যমে উর্ত্তীন হয়ে মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহনের সময় জাহিদ হাসান জিওন নামে এক শিক্ষার্থীর উত্তরপত্রের লেখা ও স্বাক্ষরের সঙ্গে হাতের লেখা ও স্বাক্ষরের মিল না পাওয়ায় সাক্ষাৎকার দিতে আসা এই শিক্ষার্থীকে প্রক্সি জালিয়াতি সন্দেহে আটক করেছে পরীক্ষা কমিটির সমন্বয়কারীরা।

আটকৃত শিক্ষার্থীর স্বীকারোক্তিতে প্রক্সি চক্রের সাথে জড়িত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের এক নেতার (অর্ক) নাম এসেছে। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের এই নেতা (লোকপ্রশাসন) বিভাগের শিক্ষার্থী। সে আটক শিক্ষার্থী জাহিদ হাসানের প্রক্সি বাবদ ব্যাংক মারফত তিন লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

ডি ইউনিট পরীক্ষা কমিটি সদস্য সহকারী অধ্যাপক শাহজাদা আহসান হাবীব জানান, ‘সামাজিক বিজ্ঞান ডীন অফিসে শিক্ষার্থীদের সাক্ষাৎকার গ্রহণকালে মেধাক্রম অনুযায়ী জিওন হাসান সাক্ষাৎকার দিতে আসে ছেলেটির দেওয়া স্বাক্ষরের সাথে কর্তৃপক্ষের কাছে থাকা স্বাক্ষরের মিল না পাওয়ায় তাকে সন্দেহমূলকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে জাহিদ স্বীকার করেছে যে সে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেয়নি। তার হয়ে অন্য একজন ভর্তি পরীক্ষা দিয়েছে’।

তিনি আরো বলেন, ‘পরীক্ষা কমিটি খুব সতর্কতার সাথে পরিক্ষার্থীদের যাচাই বাছাই প্রক্রিয়া চালিয়ে যাচ্ছে এবং কাউকে সন্দেহজনক মনে হলে সাথে সাথে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে’।

এ বিষয়ে প্রক্টর ড.মো. জাহিদুল কবীর বলেন, আমরা পুলিশে হস্তান্তর করেছি। যেই জড়িত থাকুক কাউকে ছাড় দেবে না প্রশাসন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) কামরুল হাসান বলেন, ‘ছেলেটিকে থানায় আনা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে’।

অন্যদিকে রেজিস্ট্রার কৃষিবীদ ড. হুমায়ুন কবীর বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বাদী হয়ে মামলা করবে।

ট্যাগ: Banglanewspaper প্রক্সি জালিয়াতি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ