banglanewspaper

নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁ শহরে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান কে সি মশিউর আলম বাচ্চু চৌধুরীর স্ত্রী মিনি চৌধুরীকে জবাই করে হত্যার ঘটনায় নওগাঁ থানায় একটি মামলা দয়ের হলেও এখনও পর্যন্ত পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। তবে, পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন জানিয়েছেন, অতি অল্প সময়ের মধ্যেই হত্যাকারীদের গ্রেফতার করতে সম্ভব হবে।

এদিকে, হত্যার ঘটনার ৭দিন পার হলেও হত্যাকারীদের গ্রেফতার করতে না পারায় পুলিশের ভুমিকা নিয়ে সাধারন মানুষের মনে নানান প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। শহরের সর্বত্রই এই হত্যাকান্ড নিয়ে আএলাচনা সমালোচনা চলছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক ফায়সাল বিন আহসান জানিয়েছেন এই ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই বাড়ির বর্তমান কাজের মেয়ে হাসিনা বেগম (৪০) এবং ক্যামব্রিজ মাল্টিমিডিয়া স্কুলের শিক্ষক আমান উল্লাহ’কে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। হাসিনা সদর উপজেলার পয়না নিন্দইন গ্রামের খোকা প্রামানিকের স্ত্রী এবং আমানুল্লা রানীনগর উপজেলার হরিশপুর গ্রামের আফছার মন্ডলের ছেলে। তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

নওগাঁ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তোরিকুল ইসলাম জানিয়েছেন এই লোমহর্ষক হত্যাকান্ডের অনেক গুরুত্বপূর্ন তথ্য পাওয়া গেছে। তবে তদন্তের স্বার্থে সেগুলো এখনই প্রকাশ করলে তদন্ত কার্যক্রম বিঘিœত হবে সেক্ষেত্রে মামলার অগ্রগতি নিয়ে শঙ্কা দেখা দিবে। অতি অল্প সময়ের মধ্যে হত্যাকান্ডের মোটিভ এবং হত্যাকারীদের গ্রেফতার করা সম্ভব হবে বলে তিনি জানান। তিনি এ ব্যাপারে নওগাঁবাসীর নিকট সহযোগিতা কামনা করেছেন।

উল্লেখ গত ৬ ডিসেম্বর বুধবার বেলা অনুমান সাড়ে ১১টার দিকে নওগাঁ শহরের পোষ্ট অফিস পাড়ায় নিজ বাড়িতে  রানীনগর উপজেলার সাবেক উপজেলা মৃত কে সি মশিউর আলম বাচ্চু চৌধুরীর বিধবা স্ত্রী উক্ত জীবননেছা ওরফে মিনি চৌধুরীকে জবাই করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।

ট্যাগ: Banglanewspaper নওগাঁ কুলকিনারা পুলিশ