banglanewspaper

কক্সবাজার প্রতিনিধি: কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলায় বিমানবাহিনীর দুটি প্রশিক্ষণ বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। এ ঘটনার পরও দুটি বিমানের চারজন পাইলট জীবিত ও অক্ষত আছেন বলে জানিয়েছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)।

আজ বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে মহেশখালীর পুটিবিলায় প্রথম একটি প্রশিক্ষণ বিমান বিধ্বস্ত হয়। একই সময় ছোট মহেশখালীতে অপর বিমানটি বিধ্বস্ত হয়।

আইএসপিআরের সহকারী পরিচালক মো. নূর ইসলাম জানিয়েছেন, চারজন পাইলটকে জীবিত ও অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

এদিকে বিমানের কোনো পাইলট আহত না হলেও বিমানের ধসে পড়া অংশে আঘাত পেয়ে আখি (১৫) ও ফয়সাল (১২) নামের দুই শিশু আহত হয়েছে।

এদিকে, কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আফরুজুল হক টুটুল জানান, বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর দুটি প্রশিক্ষণ বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। বিধ্বস্তের পর তাতে আগুন ধরে যায়। বিমান দুটির মুখোমুখি সংঘর্ষে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

জানা যায়, ইয়াক-১৩০ মডেলের এ দুটো বিমান একই সময়ে চট্টগ্রাম বিমানবাহিনীর ঘাঁটি থেকে উড্ডয়নের পরপরই রাডার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এরপর এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ দুটো বিমানে দু’জন করে চারজন বৈমানিক ছিলেন। তারা হলেন- বিমান বাহিনীর গ্রুপ ক্যাপ্টেন শরীফ, উইং কমান্ডার রাজীব, উইং কমান্ডার আজিম ও স্কোয়াড্রন লিডার মনির। তারা বিমান দুটোতে আগুন ধরার সঙ্গে সঙ্গে প্যারাসুটের মাধ্যমে প্রাণ রক্ষা করতে সক্ষম হন। তারা ফরমেশান ফ্লাইংয়ের (পাশাপাশি দুটো উড্ডয়ন) সময় এ দুর্ঘটনার শিকার হন। পাইলট চারজনই এখন সুস্থ ও নিরাপদে আছেন বলে জানা যায়। 

প্রত্যক্ষদর্শী যুবক হাসান জানান, বিকট শব্দের পরপরই দেখা যায় ঘটনাস্থলে আগুনের লেলিহান শিখা ও ধুয়ার কুণ্ডলি। পরে সেখানে ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট রওনা হয়। তবে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সেখানে ১৫টি স্পিড বোট প্রস্তুত রাখা ছিল। এগুলো নিয়ে উদ্ধার কার্য চলার প্রস্তুতি চলছিল। 

ট্যাগ: Banglanewspaper কক্সবাজার মহেশখালী বিমান বিধ্বস্ত