banglanewspaper

মোস্তফা  ইমরান রাজু, মালয়েশিয়া : গেলো দশ মাস ধরে হাসপাতালের বিছানায় পড়ে আছেন আলতাফ নামে এক মালয়েশিয়া প্রবাসী বাংলাদেশী। তার ঠিকানা কেউ জানে না। মানসিক ভারসম্যহীন এই প্রবাসীকে নিয়ে বিপাকে পড়েছে কুয়ালালামপুরের অদূরে ক্লাং-এর তোয়াংকো আম্পোয়ান হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি নিয়ে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছে মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনও।

হাইকমিশনের শ্রম শাখার দ্বিতীয় সচিব ফরিদ আহমেদ বলছেন, আলতাফের কাছে বৈধ-অবৈধ কোনো ধরনের কাগজপত্র নেই। সে শুধু কুমিল্লা ও বাংলাদেশ শব্দ দুটি লিখতে পারছে। এতে করে আলতাফ বাংলাদেশী অনুমান করা গেলেও তার কোনো ঠিকানা পাওয়া যাচ্ছে না। তার কোনো আত্মীয়-স্বজন যোগাযোগ করলে হাইকমিশন আলতাফকে দেশে পাঠাতে সবধরনের সহযোগীতা করবে বলেও মন্তব্য করেন ফরিদ আহমেদ। 

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, এ বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি কয়েকজন লোক রাস্তা থেকে কুড়িয়ে আলতাফ হোসেনকে হাসপাতালে রেখে চলে যান। সেখানেই ৭/সি ওয়ার্ডের ৩৯ নম্বর বেডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি।

ধারণা করা হচ্ছে আলতাফ স্ট্রোক করে রাস্তায় পড়ে গেলে কে বা কারা  তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসে। প্রাথমিক চিকিৎসায় তিনি সুস্থ হয়ে গেলেও উপযুক্ত চিকিৎসার অভাবে তার  শরীরের  বাম হাত অবশ হয়ে যায়  এবং তিনি আংশিক স্মৃতিশক্তি ও বাকশক্তি হারিয়ে ফেলেন।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আলতাফ হোসেনের অভিভাবকের খোঁজ না পেয়ে ৪ ডিসেম্বর কুয়ালালামপুর বাংলাদেশ দূতাবাসে যোগাযোগ করে। খবর পেয়ে দূতাবাসের কল্যাণ সহকারী মো. মোকসেদ আলী হাসপাতালে ছুটে যান। তিনি আলতাফ হোসেনের খোঁজ-খবর নেন।

হাইকমিশনের এ কর্মকর্তাকে দেখে হাউমাউ করে কেঁদে ওঠেন আলতাফ হোসেন। তাঁর কাছে কোনো কাগজপত্র নেই বলে আলতাফ কাগজে লিখে জানান।আলতাফের  সন্ধান দিতে দূতাবাসের +৬০১২৪৩১৩১৫০ এই নম্বরে যোগাযোগ  করতে  বলা হয়েছে।

ট্যাগ: Banglanewspaper মালয়েশিয়া বাংলাদেশ হাইকমিশন