banglanewspaper

 

মো: মোজাম্মেল ভূইয়া, আখাউড়া (ব্রাক্ষণবাড়িয়া): দ্বিতীয় বারের মতো তাবলীগ জামাতের তিন দিন ব্যাপী বিশ্ব এজতেমার একাংশ শুরু হচ্ছে ব্রাক্ষণবাড়িয়ায় শালগাঁও কালিসীমা এলাকায়।

৪ জানুয়ারী ফরজ নামাজের পর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে এর আনিষ্ঠানিকতা শুরু হবে। দুনিয়া ও আখেরাতের কামিয়াবী এবং আল্লাহর নৈকট্য হাসিলের উদ্দেশ্যে ইজতেমায় যোগ দেবেন ব্রাক্ষণবাড়ীয়া জেলাসহ ৯টি উপজেলার ধর্মপ্রান মুসলমানগন। সেই সাথে আশপাশের বিভিন্ন জেলার লোকজনও অংশ নেবেন।

এরই মধ্যে ইজতেমার মাঠের চুরান্ত প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তাবলীগ জামাতের মুরব্বীরা। ইজতেমার সার্বিক তত্ববধানে রয়েছেন ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলা তাবলীগের শুরা আমীর মাও: আনিসুর রহমান ও অধ্যাপক জাহিদুল ইসলাম।

প্রতিদিন ফজর নামাজের পর থেকে এশা নামাজ পযর্ন্ত চলবে তাদের বয়ান। আগামী ৬ জানুয়ারী আখেরী মোনাজাতের মাধ্য দিয়ে তিন দিন ব্যাপী ইজতেমা শেষ হবে।

তাবলীগ জামাতের সাথী আলহাজ্ব মো. বিল্লাহ হোসেন জানান, প্রতিদিন জেলার তাবলীগ জামাতের সাথী স্থানীয় বিভিন্ন পেশাজীবী লোকজন স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে মাঠের কাজ করছেন।

ইতিমধ্যে ইজতেমার মাঠ পুরোপুরি প্রস্তুত হয়েছে। প্যান্ডেল তৈরী, মাইক স্থাপন, বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহের জন্য টিউবওয়েল, টেপ ব্যবস্থা, অজু খানা রান্নাবান্নার কাজ ও অস্থায়ী শৌচাগার তৈরীর কাজ প্রায় শেষ হয়েছে। ইজতেমা উপলক্ষে স্বেচ্ছাসেবকদের পাশাপাশি কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা গ্রহন করেছে স্থানীয় প্রশাসন।

একটি সূত্র জানায়, প্যান্ডেলে প্রায় ২ লক্ষাধিক লোকের ধারন ক্ষমতা সম্পন্ন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন স্থান থেকে মুসল্লীগন আসতে শুরু করেছে। উপজেলার মুসল্লীদের জন্য আলাদা করে নির্মাণ করা হয়েছে খিত্তার ব্যবস্থা। বয়ানের মিম্বর থেকে একটু দুরে মুরব্বিদের জন্যআলাদা করে তাবুর ব্যবস্থা করা হয়। ওই তাবুতে থাকবেন কাকরাইলসহ দেশ বিদেশের শীর্ষস্থানীয় মুরব্বীরা।

এছাড়া ইজতেমার মাঠে মুসল্লীদের হাটা চলার জন্য তাদের সুবিধার্থে উন্মক্ত জায়গা রাখা হয়েছে।

ট্যাগ: Banglanewspaper আমবয়ান ব্রাক্ষণবাড়িয়া ইজতেমা শুরু