banglanewspaper

কৃতিত্বের জন্য পুরস্কারের পাশাপাশি কাজের জন্য জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। প্রত্যেক পুলিশ সদস্যকে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার সকালে রাজারবাগ পুলিশ লাইনে পুলিশ সপ্তাহ-২০১৮ এ বক্তব্য কালে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ২০২১ সালে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে। ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।

বাংলাদেশকে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গড়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা গড়তে চাই। এ জন্য পুলিশসহ সব শেণিপেশার মানুষকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

সরকারপ্রধান বলেন, ‘জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদ দেশের শান্তি, স্থিতিশীলতা ও উন্নয়নের জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি। একজন সন্ত্রাসীর কোনো ধর্ম-বর্ণ ও গোত্র নাই। সন্ত্রাসী সন্ত্রাসীই। আমরা ধর্মের নামে যেকোনো সহিংস কর্মকাণ্ডের নিন্দা জানাই।’

তিনি বলেন, ‘আর বিশেষ করে ইসলাম শান্তির ধর্ম। সেখানে মানুষ হত্যা করে বেহেশতে যাওয়া যাবে- এ ধরনের বিভ্রান্তি যারা পোষণ করে, তারা কখনোই বেহেশতে যাবে না। কাজেই ইসলাম যে শান্তির ধর্ম, সেই শান্তি বজায় রাখা সবারই কর্তব্য।’ শেখ হাসিনা আরওবলেন, ‘কিন্তু অযথা এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়ে আমাদের পবিত্র ধর্মকে অনেকেই কলুষিত করছেন।’

জঙ্গিবাদ দমনের ক্ষেত্রে পুলিশের ভূমিকার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এ দেশের মাটিতে কোনো জঙ্গি-সন্ত্রাস বা যুদ্ধাপরাধীদের স্থান হবে না। আমরা চাই, বাংলাদেশের মাটি থেকে জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদ মুক্ত হবে, বাংলাদেশ শান্তির দেশ হবে। তাই সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ নির্মূল করে আমরা দেশের প্রতিটি মানুষের শান্তি-নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চাই।’

তিনি আরও বলেন, ‘সে কারণেই আমরা এ দেশের সর্বস্তরের মানুষ, আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা একেবারে গ্রাম বা তৃণমূল পর্যায় থেকে সব গোষ্ঠী, সব সম্প্রদায়ের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করে জনপ্রতিরোধ গড়ে তুলে এই সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদকে আমরা বাংলার মাটি থেকে নির্মূল করতে চাই।’

এর আগে সোমবার বেলা ১১টায় পুলিশ সপ্তাহ-২০১৮ উপলক্ষে রাজারবাগে আসেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে পুলিশ সপ্তাহ-২০১৮ এর শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অনুষ্ঠান শেষে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে বার্ষিক নৈশভোজে অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী।

‘জঙ্গি, মাদকের প্রতিকার বাংলাদেশ পুলিশের অঙ্গীকার’ শ্লোগানকে সামনে রেখে শুরু হলো ৫ দিনব্যাপী এই পুলিশ সপ্তাহ। চলবে জানুয়ারির ১২ তারিখ (শুক্রবার) পর্যন্ত।

ট্যাগ: Banglanewspaper পুলিশ প্রধানমন্ত্রী