banglanewspaper

ছাত্রলীগের ২৯তম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩১ মার্চ ও ১ এপ্রিল। ইতিমধ্যে সম্মেলনের প্রস্তুতি নিতে ছাত্রলীগকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। তিনি এ সময়ের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি), ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণসহ মেয়াদোত্তীর্ণ ইউনিটগুলোয় নতুন কমিটি দেয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন। ১২ জানুয়ারি সংগঠনের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সভা ডেকে সম্মেলনের তারিখ চূড়ান্ত করা হবে। আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের নির্ভরযোগ্য কয়েকটি সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

জানা গেছে, সম্মেলন সামনে রেখে চাঙ্গা হয়ে উঠেছে ছাত্রলীগের রাজনীতি। পদ পেতে নেতাকর্মীদের দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়েছে। নেতৃত্ব নির্বাচনের প্রক্রিয়া এবং বয়স নিয়ে চলছে আলোচনা। এছাড়া নতুন নেতৃত্ব গঠনে কোন এলাকা প্রাধান্য পাচ্ছে তাও রয়েছে আলোচনার শীর্ষে। ইতিমধ্যে কেন্দ্রের সম্ভাব্য প্রার্থীরা নিজেদের মাঠ গোছাতে শুরু করেছেন। জুনিয়র পর্যায়ের নেতাকর্মীরা সম্ভাব্য প্রার্থীদের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়িয়ে দিয়েছেন। ফলে নতুন করে জমে উঠেছে রাজনীতি।

২০১৫ সালের ২৫ ও ২৬ জুলাই ছাত্রলীগের ২৮তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনে সাইফুর রহমান সোহাগ সভাপতি ও এসএম জাকির হোসাইনকে সাধারণ সম্পাদক করে পাঁচ সদস্যের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। এর আগে ১১ জুন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সম্মেলন শেষে ১৮ জুন আবিদ আল হাসান সভাপতি ও মোতাহার হোসেন প্রিন্সকে সাধারণ সম্পাদক করে নতুন কমিটি গঠন করা হয়। ২৮ মে ঢাকা মহানগর উত্তরের সম্মেলন শেষে ৩০ মে মিজানুর রহমান সভাপতি ও মহিউদ্দিন আহমেদকে সাধারণ সম্পাদক করে শাখাটির ৬ সদস্যের কমিটি ঘোষণা করা হয়। ঢাকা মহানগর দক্ষিণে ৩০ মে সম্মেলন শেষে

ওই দিনই বায়েজিদ আহমেদ খান সভাপতি ও সাব্বির হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে শাখাটির ৮ সদস্যের নতুন কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী, সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কমিটির মেয়াদ ২ বছর ও জেলা কমিটির মেয়াদ ১ বছর। সেই হিসাবে কেন্দ্রীয় কমিটি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা মহানগর শাখা কমিটির মেয়াদোত্তীর্ণ হয়েছে। এছাড়া দেশের বিভিন্ন ইউনিটে এখনও নতুন কমিটি পায়নি ছাত্রলীগ। এসব ইউনিটে শিগগিরই সম্মেলনের ঘোষণা আসবে বলে নিশ্চিত করেছে ছাত্রলীগ সূত্র।

৬ জানুয়ারি ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর র‌্যালিপূর্ব সমাবেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আগামী মার্চ মাসে ছাত্রলীগের সম্মেলন হবে বলে জানিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, এটি প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার ইচ্ছা। অনতিবিলম্বে ছাত্রলীগের নির্বাহী কমিটির সভা ডেকে সম্মেলনের তারিখ ঘোষণার নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি। এমন ঘোষণার পর সোমবার গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

এ বিষয়ে ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, ‘সম্মেলনের প্রস্তুতি নিতে নেত্রী (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) নির্দেশ দিয়েছেন। ১২ জানুয়ারি কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সভায় সম্মেলনের তারিখ চূড়ান্ত হবে।’ সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন বলেন, ‘যেসব ইউনিটে কমিটি হয়নি, মার্চের মধ্যে সেসব ইউনিটে কমিটি দেয়া হবে। নেত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। ১২ জানুয়ারি ছাত্রলীগের নির্বাহী সংসদের সভায় সম্মেলনের বিষয়ে করণীয় ও তারিখ চূড়ান্ত হবে।’ -যুগান্তর।

ট্যাগ: Banglanewspaper ছাত্রলীগ সম্মেলন