banglanewspaper

শরীফ আনোয়ারুল হাসান (রবিন) : ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে মাগুরা ঢাকা রোড়ে নবগঙ্গা নদীর উপর নির্র্মিত ওয়্যার সেতুটির পিলারে ফাটল দেখা দিয়েছে। অন্যদিকে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে শালিখার আড়পাড়ায় ফটকীকি নদীর উপর নির্মিত পুরাতন অপর সেতুটিও।

ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের এ দুটি সেতুর উপর দিয়ে যাত্রীবাহী বাসসহ প্রতিদিন চলছে হাজার-হাজার ভারী যানবাহন। বিশেষ করে পাথর ও রড বোঝাই ১০ চাকার ভারি  ট্রাক চলাচল করায় ঝুকিপূর্ণ এ সেতু দুটি যে কোন সময় ভেঙ্গে যানমালের ক্ষয়-ক্ষতিসহ দীর্ঘ মেয়াদে দেশের  দক্ষিণ-পশ্চিম এলাকার সাথে বিচ্ছিন্ন হয়ে যেতে পারে সড়ক যোগাগোগ ব্যবস্থা। 

পানি উন্নয়ন বোর্ডের দেওয়া তথ্য মতে, ১৯৬৬ সালে পানি উন্নয়ন বোর্ড মাগুরা শহরের ঢাকা রোড়ে নবগঙ্গা নদীর উপর ওয়্যার সেতুটি নির্মাণ  করে। অন্যদিকে স্বধীনতা পরবর্তী সময়ে আড়পাড়ার ফটকী নদীর উপর অপর সেতুটি নির্মাণ করে সড়ক জনপথ বিভাগ। ইতিমধ্যে ঢাকা রোড ওয়্যার সেতুটির পিলারে ফাটল দেখা দিয়েছে।

অন্যদিকে পুরাতন হওয়ার ঝুকিপুর্ণ হয়ে পড়েছে আড়পাড়া সেতুটি। এ সেতু দুটির উপর দিয়ে প্রতিদিন চলাচল করছে ধারণ ক্ষমতার ৩-৪ গুন বেশি ভারী ৬০ থেকে ৮০ টন ওজনের পাথর ও রড বোঝাই ১০ চাকার  ট্রাক। ফলে এ বছরের ফেব্রুয়ারী মাসে একই সড়কে সীমাখালী সেতুর মত এ দুইটি সেতু যে কোন সময় ভেঙ্গে পড়ে ঘটতে পারে বড় ধরনে দুর্ঘটনা।

স্থানী পারনান্দুয়ালী এলাকার বাসিন্দা রেজাউল ইসলাম বলেন, ঢাকা রোডের ব্রিজটি পাকিস্তান আমলে নির্মাণ করা। এ ব্রীজ টির পিলারে ফাটল দেখা দিয়েছে। সম্প্রতি সেতুটির দুর্বল রেলিং ভেঙ্গে একটি মালবাহী ট্রাক নদী পড়ে যায়। ১০ চাকার ওভার লোডের ট্রাক চলায় এ সেতুটি অত্যন্ত এখনঝুকিপুর্ণ হয়ে পড়েছে। যেটি ভেঙ্গে পড়ে যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

অন্যদিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের আড়পাড়া ফটকী নদীর উপর নির্মিত সেতুটিও অনেক পুরাতন হয়ে গেছে। 

অড়পাড়া ডিগ্রি কলেজের শিক্ষক দেবব্রত দে বলেন, সাধারণ গাড়ী উঠলেই সেতুটি কাপতে থাকে। তার পর এর উপর দিয়ে ৬০ থেকে ৮০ টন পাথর ও রড় বোঝাই ১০ চাকার ট্রাক চলাচল করে। সীমাখালীর সেতুর মত যে কোন সময় এ সেতুটিও ভেঙ্গে জানমালের ক্ষয়ক্ষতির পাশাপাশি দীর্ঘ মেয়াদে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে যেতে পারে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী আব্দুল্লাহেল বাকি জানান, ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের মাগুরার সীমাখালীতে এ বছরের ফেব্রুয়ারী মাসে ভেঙ্গেপড়া সীমাখালী ব্রিজের সাথে ঝুকিপূর্ণ আড়পাড়া ব্রিজটিরও ডিজাইন তৈরী করা হয়েছে। অনুমোদন ও অর্থ বরাদ্দ প্রক্রিয়া চুডান্ত হলে এ ব্রিজটির স্থলে ৪ লেনের কংক্রিটের ব্রিজ নির্মাণ করা হবে।

এদিকে পানি উন্নয়ন বোর্ড নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল লতিফ বললেন, নবগঙ্গা নদী খনন প্রকল্প সংশ্লিষ্ট দপ্তরের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। এ প্রকল্পের সাথে ৬৬ সালে নির্মিত ঢাকা রোডের ঝুকিপুর্ণ ওয়্যার সেতুটি মেরামত করা হবে।

ট্যাগ: Banglanewspaper মাগুরা সেতু