banglanewspaper

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: দক্ষিণ ফ্রান্সের কয়েকটি স্কুলে টিফিনের খাদ্যতালিকায় শূকরের মাংস যুক্ত করেছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। তাদের এ সিদ্ধান্তে সেখানে অবস্থানরত ১৫০ মুসলিম শিক্ষার্থীর মানবাধিকার লঙ্ঘিত হওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

এর আগে, প্রায় ৬শ’ শিক্ষার্থীর মধ্যে ওই ১৫০ জনের জন্য স্কুল থেকে ‘বিকল্প খাবার’ সরবরাহ করা হত বলে  দ্য গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়।

জানা যায়, দক্ষিণ ফ্রান্স কর্তৃপক্ষ ‘মুসলিম-বিরোধী’ বা ইহুদি-বিরোধী’ আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় সেখানকার স্কুলগুলোতে ‘শূকরের মাংসবিহীন’ খাবার বাতিল ঘোষণা করে। সূত্র মতে, স্থানীয় এক মন্ত্রীর দ্বারা মুসলিম ও ইহুদি-বিরোধী এ আন্দোলনটি পরিচালিত হয়ে থাকে।

লিঙ্গসমতা-বিষয়কমন্ত্রী মার্লো শিয়াপ্পা গণমাধ্যমকে জানান, পুরো বিষয়টি অসাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে প্রবল কষাঘাতের সামিল। এখানে মুসলিম ও ইহুদি-বিদ্বেষকে রাজনৈতিক হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে।

ফ্রান্সের বিরোধীদলীয় নেতা লোহ কহদেল বলেন, এই সিদ্ধান্তটি একবারেই শিশু অধিকারের পরিপন্থী।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালে দক্ষিণ দিজনের রিপাবলিকান মেয়র শ্যালো-সু-সাওঁ স্কুলের ক্যান্টিনগুলোতে সবধরনের শূকরের মাংসযুক্ত খাবার সরবরাহ নিষিদ্ধ ঘোষণা করেন। পরবর্তীতে ২০১৭ সালের আগস্ট মাসে দিজনের প্রশাসনিক আদালত ‘শিশুদের খাবার নির্বাচনের অধিকার ক্ষুণ্ন হচ্ছে’, এমন অভিযোগ এনে ওই সিদ্ধান্ত বাতিল করে দেন।

ট্যাগ: Banglanewspaper স্কুলের টিফিন শূকরের মাংস