banglanewspaper

টঙ্গীতে তাবলিগ জামাতের বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজের জিম্মাদার মাওলানা মোহাম্মদ সাদ কান্ধলভির আসাকে কেন্দ্র করে বর্তমানে বিমানবন্দর এলাকায় বিক্ষোভ করছেন মুসল্লিরা। 

বুধবার সকাল থেকে বিমানবন্দরের অদূরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের বায়তুস সালাম জামে মসজিদ সংলগ্ন চত্বরে এ বিক্ষোভ চলছে। 

এদিকে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ওই চত্বরে বিক্ষোভকারীদের ঢল নামায় বিমানবন্দর থেকে উত্তরা পর্যন্ত সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

শাহজালাল বিমানবন্দর থানার ওসি নূরে আযম সিদ্দিকী বলেন, বিমানবন্দর গোলচত্বর এলাকায় পূর্বঘোষিত শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ ও সমাবেশ করছেন আলেম-ওলামারা। মাওলানা সাদ কান্ধলভীকে যেনো বাংলাদেশে আসতে দেয়া না হয় সেজন্য স্লোগান দিচ্ছেন তারা। মাওলানা সাদ কান্ধলভী আজ দুপুরে বাংলাদেশে আসার কথা রয়েছে। সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আমরা তাকে নিরাপদে গন্তব্যে পৌঁছে দেবো।

জানা যায়, তাবলিগের মূল কেন্দ্র ভারতের দিল্লির নিজামুদ্দীন মারকাজ। সেই মারকাজের আমির মাওলানা সাদের একটি বক্তব্য ‘তাবলিগ করা ছাড়া কেউ বেহেশতে যেতে পারবে না’- এর জের ধরেই বিতর্কের সৃষ্টি। ভারতের সবচেয়ে বড় ইসলামী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দারুল উলুম দেওবন্দ থেকে তার এ বক্তব্যের বিরোধিতা করা হয়। তার এমন বক্তব্য প্রত্যাহারের জন্য বলা হলেও মাওলানা সাদ উল্টো যুক্তি দেন। তারপর থেকেই মাওলানা সাদকে কেন্দ্র করে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

বাংলাদেশের কওমিপন্থি ও হেফাজতের অনুসারী আলেমরাও মাওলানা সাদের বক্তব্যের বিরুদ্ধে অবস্থান নেন। এমন উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বাংলাদেশে বিশ্ব ইজতেমায় মাওলানা সাদ যেন না আসতে পারেন সেজন্য আলেমরা সম্মিলিত সিদ্ধান্ত নেন। তাবলিগের বাংলাদেশের ১১ জন শূরা সদস্যের মধ্যে ছয় জনই আলেমদের এ সিদ্ধান্ত মেনে নেন। তারপরও একটি অংশ তাবলিগের মুরব্বি ওয়াসিফুল ইসলামের নেতৃত্বে সম্মিলিত সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে অবস্থান নেন বলে অভিযোগ ওঠে।

ট্যাগ: Banglanewspaper বিশ্ব ইজতেমা মাওলানা সাদ বিক্ষোভ