banglanewspaper

ফেঞ্চুগঞ্জ সংবাদদাতা: ফেঞ্চুগঞ্জ চান্দপুর সাবেক ফেরীঘাট এলাকায়। সড়ক ও জনপদের আওতাধীন এলাকা দখল করে গড়ে উঠেছে অবৈধ বাজার। যে কারনে সরকার হারাচ্ছে রাজস্ব আর বিঘ্নিত হচ্ছে সিলেট- বালাগঞ্জ ও মল্লিকপুর- মীরগঞ্জ যান চলাচল। দেখা যায় গত কয়েক বছর ধরে একটা দুইটা করে গড়ে উঠেছে পাকা দোকানপাট।  আস্তে আস্তে পুরোটাই বাজারে রূপ নেয়। এখানে দোকানপাট, রেস্টুরেন্ট, কাচা বাজার, ও  যানবাহনের শাখা অফিস গড়ে তুলা হয়েছে। যাদের কোনু অনুমতি নেই।

কেউ অনুমতির তোয়াক্কা করেন নি।স্থানীয়রা প্রভাব খাটিয়ে এ বাণিজ্য এলাকা গড়ে তুলেছেন। এ ছাড়াও সড়ক ও জনপদের জায়গার উপর রয়েছে ইট পাথর কয়লার মজুদ। যা দক্ষিন জনপদে চলাচলের বিঘ্নতা সৃষ্টি করছে। আর এসব অবৈধ ও অপরিকল্পিত নির্মানের কারনে চান্দপুর - মল্লিকপুর সড়কে বারো মাসই জলাবদ্ধতা হয়ে থাকে। যে কারনে সড়কে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়ে স্বাভাবিক চলাচল কষ্টকর হয়ে উঠেছে।

এ ছাড়াও এখানে আবাসিক এলাকায় গড়ে উঠেছে চামড়ার ট্যানারি। যা পরিবেশের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। সন্দ্যার পর এখানে বসে গাজার আসর।গাঁজাখোরদের উৎপাত বেড়ে যায়। আতংকবোধ করেন যাতায়াতকারী লোকজন।

এসব দ্রুত বন্ধ করতে দাবি উঠেছে স্থানীয়দের।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে সিলেট সড়ক ও জনপদ কর্মকর্তা নুরুল মজিদ অবৈধ স্থাপনার কথা স্বীকার করে বলেন, এসবের তালিকা ম্যাজিস্ট্রেটের সহযোগীতা নিয়ে দ্রুত উচ্ছেদ করা হবে।

ট্যাগ: Banglanewspaper ফেঞ্চুগঞ্জ