banglanewspaper

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামে শীতের তীব্রতা আবারো কিছুটা বৃদ্ধি পাওয়ায় জনজীবন বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছে। বৃহস্পতিবার জেলার সর্বনি¤œ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৮.৭ ডিগ্রী সেলসিয়াস। এ অবস্থায় বিকেল হওয়ার সাথে সাথেই কনকনে ঠান্ডায় কাহিল হয়ে পড়ছে মানুষজন। দিন বেশির ভাগ সময় সুর্যের দেখা না মেলায় এ সময়টাতে ঘন-কুয়াশার চাদরে ঢেকে থাকছে পুরো জনপদ।

এদিকে গরম কাপড়ের অভাবে চরম দুর্ভোগে পড়েছে নিম্ন আয়ের হতদরিদ্র মানুষেরা।অন্যান্ন বছর কুড়িগ্রামের পুরাতন গরম কাপড়ের বাজার নছর উদ্দিন মার্কেটে কাপড়ের দাম সাধ্যের মধ্যে থাকলেও এবার তা লাগামহীন আকাশচুম্বি হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।দোকানদাররা ১০০ টাকার জিনিষ ৩০০ টাকা দাম হাকছেন বলে জানান এক ক্রেতা। শ্রমজীবি মানুষেরা হাড় কাপানো শীতে কাজে যেতে না পাড়ায় পরিবার পরিজন নিয়ে বিপাকে পড়েছেন তারা।

তাপমাত্রা নিম্নগামী থাকায় শিশু ও বৃদ্ধরা আক্রান্ত হচ্ছে নিউমোনিয়া, ডায়রিরা, স্ট্রকসহ বিভিন্ন রোগে। ফলে হাসপাতালগুলোতে বাড়ছে রোগীর সংখ্যা। কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ আনোয়ারুল হক জানান প্রতিদিন শীতজনিত রোগির সংখ্যা বাড়ছে। তাই সকল ডাক্তারের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। জেলায় ৮৫ টি মেডিকেল টিম কাজ করছে বলে তিনি জানান।

খুব প্রয়োজন ছাড়া মানুষ ঘর থেকে বের হচ্ছেনা। বেশ বেকায়দায় পড়েছে নতুন বছরে স্কুলগামী শিক্ষার্থিরা। একদিকে স্কুলে ভর্তি হওয়া অন্যদিকে নতুন বই সংগ্রহ করা নিয়ে শীতে থমকে আছে সবকিছু।খর-কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারনের চেষ্টা করছেন ছিন্নমুল মানুষেরা। দুর্ভোগ বেড়েছে গবাদি পশু পাখিদেরও।   

জেলা প্রশাসন থেকে সরকারীভাবে বরাদ্দকৃত ৫৭ হাজার কম্বল বিতরন করা হলেও তা বিপুল সংখ্যক হতদরিদ্র মানুষের জন্য প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। নতুন করে ৫০ হাজার কম্বলের চাহিদা পাঠানো হলেও এখনও তা পাওয়া যায়নি। বেসরকারী সাহায্য সংস্থাগুলোর সহযোগিতাও চোখে পড়ছেনা।

ট্যাগ: Banglanewspaper কুড়িগ্রাম শীত ডিগ্রী