banglanewspaper

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাষণে জনগণ নয়, বিএনপিই হতাশ হয়েছে। আগামী জাতীয় নির্বাচনে পরাজয়ের ভয়ে বিএনপি নেতারা আবোল তাবোল বকছেন। আজ বিএনপি নেতারা হতাশার বালুচরে হাবুডুবু খাচ্ছেন।

শনিবার সন্ধ্যায় শেখ হাসিনার ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।
ওবায়দুল কাদের বলেন, আগুন সন্ত্রাস চালিয়ে বিএনপি তাদের ভোট ব্যাংকের যে ক্ষতি করেছেন সেই মাশুল অনেকদিন দিতে হবে।

তিনি বলেন, এ মুহুর্তে সংলাপের কোন প্রয়োজন নেই। কোনো সংকট সৃষ্টি হলে সংলাপ হবে। তবে, কোন অরাজকতা করলে জনগনকে সঙ্গে নিয়ে কঠোরভাবে তা প্রতিহত করা হবে। তাছাড়া সংলাপের রাস্তা বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া নিজেই বন্ধ করেছেন। টেলিফোনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে অসৌজন্য আচরন করেছিলেন। অশ্রাব্য ভাষার ব্যবহার করেছিলেন। সেদিন প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে গণভবনে আসলে বাংলাদেশের রাজনৈতিক পরিবেশ অন্যরকম হতো।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন,একটা উন্নয়নের উদাহরণ দেখান, যেটা বিএনপি করেছে। পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল সবই আওয়ামী লীগের অর্জন। সরকার নির্বাচনের সময় শুধু রুটিন দায়িত্ব পালন করবে। তারা সংবিধানের আইনি অধিকারের অপব্যবহার করতে চাইছে। ওই সময় সরকার শুধু সুষ্ঠু নির্বাচন নিশ্চিত করবে।

আওয়ামী লীগের শাসনামল পাকিস্তানের স্বৈরশাসক আইয়ুব খানের সঙ্গে তুলনার কঠোর সমালোচনা করে কাদের বলেন, শেখ হাসিনার শাসনামল আইয়ুব খানের সঙ্গে তুলনা করে, তারা প্রকারান্তরে পাকিস্তানের ভাবধারায় বিশ্বাস করে এবং তাদের রাজনীতি এটা বুঝিয়ে দিয়েছেন।

ট্যাগ: Banglanewspaper প্রধানমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিএনপি