banglanewspaper

মোঃ নাসির উদ্দিন, নকলা (শেরপুর) প্রতিনিধি: শেরপুরের নকলায় উন্নয়ন মেলার শেষ দিনে (শনিবার) সব কয়টি স্টলে ছিলো দর্শকদের উপচেপড়া ভিড়। তবে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, তুলা উন্নয় বোর্ড ও বিএডিসি হিমাগারের যৌথ আয়োজনে সজ্জিত স্টলটি ছিলো সবশ্রেণি পেশাদের নজরে। স্টলটি দর্শনীয় করতে সাজানো হয়েছিল নতুন আঙ্গিকে।

শীতকালীন নানা ধরনের সবজি বোঝাই নৌকা ছিলো তার প্রধান আকর্শন। তাছাড়া টবে তুলা গাছ, প্যাকেটে তুলা, কৌটায় নকলার উৎপাদিত খাঁটি মধু-মোম, গত একবছরে নকলার কৃষি উন্নয়নের সিটিজেন চার্টার, প্রজেক্টরে অনবরত প্রদর্শিত হচ্ছিল নকলার বিভিন্ন এলাকার কৃষি উন্নয়নের চিত্র সম্বলিত ভিডিও, দর্শক ও পাঠকদের জন্য ছিলো ধান. পাট, গম, আলু, সরিষা, ডাল, বেগুন, টমেটো, সিফুল কপি, বাধাকপি, কুমড়া, লাউ, মুলা, পেঁপে, কাচামরিচ, করলা, গাজর, তুলা, বিভিন্ন ফল ও ফসলসহ নানা শাক সবজি চাষ পদ্ধতির কৌশল ও রোগ বালাই থেকে রক্ষা পাওয়ার প্রাথমিক চিকিৎসা সম্বলিত বই, লিফলেট, ব্যানার ও পত্রিকা।  

দর্শকদের পাশাপাশি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী, বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, বিভিন্ন জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কৃষক-কৃষাণিসহ সব পেশা শ্রেনির দর্শকরা একনজর ওই কৃষি স্টলটি দেখতে ভিড় করেন। শনিবার বিকালে কৃষি স্টলটির সামনে দর্শকদের লাইন করা অবস্থায় দেখা গেছে।

দর্শকদের মধ্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাজীব কুমার সরকার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ; উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মুহাম্মদ সারোয়ার আলম তালুকদার, পৌরসভার মেয়র হাফিজুর রহমান লিটন, শেরপুর জেলা পরিষদের সদস্য ছামিউল হক মুক্তা, সহকারী কমিশনার (ভুমি) মাসুদ-উল-আলম, উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা ডা. মোঃ মজিবুর রহমান, নকলা থানার ওসি খান আব্দুল হালিম সিদ্দিকী, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা আরমানা হক, মৎস্য কর্মকর্তা সুলতানা লায়লা তাসনিম, সমাজসেবা কর্মকর্তা তানজিল আহমেদ চৌধুরী, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সোহানা বিলকিসসহ সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, বিভিন্ন ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যবৃন্দ, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিকলীগ ও তার অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ ছিলেন উল্লেখ যোগ্য।

আর নিজেদের স্টল হওয়ায় বিএডিসি হিমাগার নকলার উপ-পরিচালক রফিকুল ইসলাম ও উপ-সকারী পরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান; উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ হুমায়ুন কবীর, সম্প্রসারন কর্মকর্তা কৃষিবিদ আব্দুল ওয়াদুদ ও উপসহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা আতিকুর রহমানসহ বিভিন্ন ব্লকের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তাগন দর্শকদের বিভিন্ন বিষয়ে বুঝানোর স্বার্থে তথা তাদের প্রশ্নের জবাব দিতে সার্বক্ষণিক স্টলে বসা ছিলেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে উপজেলার শ্রেষ্ট দফতর তথা শ্রেষ্ট স্টল নির্বাচনের ক্ষেত্রে সুযোগ্য বিচারকগন ৩৫ সস্টলের মধ্যে বিভিন্ন দিক বিচার বিশ্লেষণ করে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, তুলা উন্নয় বোর্ড ও বিএডিসি হিমাগারের যৌথ আয়োজিত স্টলটিকে সেরা হিসেবে ঘোষনা করেন। পরে সেরা ( প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয়) স্টলের দফতর প্রধানদের হাতে সম্মাননা সনদ তোলে দেন উপজেলা প্রশাসন কর্তৃপক্ষ।

এর আগে শনিবার সকালে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে তথ্য ও যোগাযোগ অধিদপ্তরের সহযোগিতায় পরিষদ প্রাঙ্গনে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সেমিনারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাজীব কুমার সরকারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ; উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মুহাম্মদ সারোয়ার আলম তালুকদার, জেলা পরিষদের সদস্য ছামিউল হক মুক্তা, উপজেলা স্বাস্থ্য ও প. প কর্মকর্তা ডা. মোঃ মজিবর রহমান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ আব্দুর রশিদ। এসময় সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও স্থানীয় সাংবাদকর্মীগন উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগ: Banglanewspaper শেরপুর উন্নয়ন মেলা