banglanewspaper

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রায়ত্ত সরকারি আট ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার পদে নিয়োগ পরীক্ষা বাতিল, সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা নিতে ব্যর্থ হওয়ায় ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির (বিএসসি) সদস্য সচিব মোশাররফ হোসেন খানের পদত্যাগ এবং পিএসসির অধীনে নিয়োগ পরীক্ষা নেয়াসহ বিভিন্ন দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছেন চাকরিপ্রার্থীরা।

রোববার সকাল ১০টায় বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড ও ব্যানার নিয়ে মতিঝিল বাংলাদেশ ব্যাংকের সামনে বিক্ষোভ করেন চাকরিপ্রার্থীরা। সেখানে ১৫ থেকে ২০ মিনিট অবস্থান করার পর পুলিশ তাদের সরিয়ে দেয়। এরপর তারা জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করে।

মানববন্ধনে পরীক্ষার্থীরা অভিযোগ করেন, এমন প্রহসনের পরীক্ষা বাতিল করতে হবে। প্রশ্নফাঁস হয়েছে। অনেক কেন্দ্রে মোবাইল ব্যবহার করে পরীক্ষা দিয়েছে। কোনও কেন্দ্রে সিট প্ল্যান ছিল না। ঠাসাঠাসি করে বসে দেখাদেখি করে পরীক্ষা দিয়েছেন পরীক্ষার্থীরা। সবখানেই ছিল আসন অব্যবস্থাপনা। হযরত শাহ আলী কলেজে পরীক্ষার্থীদের জন্য পর্যাপ্ত আসন ছিল না। সেখানে ৫ হাজার ৬০০ পরীক্ষার্থী পরীক্ষাই দিতে পারেননি। দনিয়া কলেজে পরীক্ষা শুরুর ১০ মিনিট পর প্রশ্ন এসেছে। পরীক্ষা শুরু হয়েছে আরও পরে। এই সব কিছুর প্রমাণ রয়েছে পরীক্ষার্থীদের কাছে।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারীদের দাবি, ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটি বিলুপ্ত করে পিএসসির আদলে আলাদা করে প্রশ্নপত্র প্রণয়ন করে পরীক্ষা নিতে হবে। ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির সদস্য সচিব মোশাররফ হোসেন খানকে পদত্যাগ করতে হবে। প্রতিটি কেন্দ্রে সিট প্ল্যান নিশ্চিত করতে হবে। বিতর্কিত কেন্দ্রগুলোকে কেন্দ্র তালিকা থেকে বাদ দিতে হবে। কেন্দ্রগুলোয় আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর পর্যাপ্ত সদস্য মোতায়েন করতে হবে। ঢাকা কেন্দ্রীক নয়, বিভাগীয় শহরে পরীক্ষার কেন্দ্র দিতে হবে।

উল্লেখ্য, গত বছর সোনালী, রূপালী ও জনতা ব্যাংকের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির ভিত্তিতে নিয়োগ পরীক্ষাসহ পরবর্তী কার্যক্রম পরিচালনা না করতে হাইকোর্ট নির্দেশ দিয়েছিলেন। গত বৃহস্পতিবার চেম্বার বিচারপতি সে আদেশ স্থগিত করেন। এই আদেশের ফলে ওই তিন ব্যাংকসহ আট ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার (সাধারণ) ১ হাজার ৬৬৩টি শূন্য পদে ২ লাখ ১৩ হাজার ৫২৫ জন পরীক্ষার্থী আবেদন করেছিলেন।

ট্যাগ: Banglanewspaper ৮ ব্যাংক নিয়োগ পরীক্ষা