banglanewspaper

এম. রহমান, ঝিনাইদহ: দেশের অন্যতম প্রধান সবজি উৎপাদনকারী পশ্চিমের জেলাগুলোতে ভরা মৌসুমে শীতকালীন শাক-সবজির দাম চড়ে গেছে। অন্যান্য বছর এ সময় সব ধরনের সবজির দরপতন হয়। পানির দামে সবজি বিক্রি হতো। জেলাগুলো হচ্ছে: কুষ্টিয়া, চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর, যশোর, ঝিনাইদহ ও মাগুরা।

চাষিরা ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মাঠকর্মীরা জানান, বৈরী আবহাওয়ার কারণে ফলন কম হচ্ছে। বর্তমানে হাট-বাজারে খুচরা প্রতি কেজি বেগুন ৫০-৬০ টাকা, শিম প্রতি কেজি ৪০-৫০ টাকা, ফুলকপি ৩৫-৪০ টাকা, বাঁধাকপি প্রতিপিস ১৫-১৬ টাকা, টমেটো প্রতি কেজি ৩৫-৪০ টাকা, ওলকপি ৪০-৪২ টাকা ও কাঁচামরিচ ৭৫-৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। তবে সব ধরনের সবজির দাম কমে গিয়েছিল।

ফের চড়ে গেছে। শনিবার ঝিনাইদহের শৈলকুপার সবজির পাইকারি বাজারে ফুলকপি প্রতি কেজি ৩০-৩৫ টাকা, বাঁধাকপি প্রতিপিস ১০-১২ টাকা, শিম প্রতি কেজি ৩৫-৪০ টাকা, বেগুন প্রতি কেজি ৪০ টাকা, মূলা প্রতি কেজি আড়াই টাকা দরে বিক্রি হতে দেখা যায়। যশোরের সবজি গ্রাম বলে খ্যাত হৈবতপুরের চাষি ইজাজুল ইসলাম বলেন, ক্ষেতে সবজি কম ধরছে।

১৫ দিন আগে এক বিঘাতে ১০-১২ মণ করে বেগুন ধরছিল। এখন দুই-তিন মণ করে ধরছে। বারিনগর সবজি বাজারে শনিবার পাইকারি প্রতি কেজি বেগুন ৩০ টাকা, ফুলকপি প্রতি কেজি ২৫ টাকা, বাঁধাকপি প্রতি পিস ১২/১৩ টাকা, শিম প্রতি কেজি ২৫/৩০ টাকা, টমেটো ২০ টাকা কেজি এবং গাজর ২০/২৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয় বলে সবজি চাষি ইজাজুল ইসলাম আরো জানান।

গতবছর এ সময় পাইকারি ফুলকপি চার/পাঁচ টাকা, বাঁধাকপি প্রতিপিস পাঁচ/ছয় টাকা, বেগুন ৮/১০ টাকা কেজি ও শিম ৯/১০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছিল। এমনকি কোনো কোনোদিন ক্রেতা মিলতো না।  
 

ট্যাগ: Banglanewspaper ঝিনাইদহ শীতকালীন সবজি