banglanewspaper

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ফ্রান্সের নামকরা দুগ্ধজাত খাদ্য কোম্পানি ল্যাকটালিস-এর তৈরি গুঁড়ো দুধে স্যালমোনেলা ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণের খবরের পর বাজার থেকে ১ কোটি ২০ লাখেরও বেশি দুধের বাক্স ফিরিয়ে নিচ্ছে কোম্পানিটি। কিন্তু প্রক্রিয়াটি এত সহজ নয়। কেননা সেই দুধ ফিরিয়ে নিতে হবে বিশ্বের ৮৩টি দেশ থেকে।

তবে চলমান প্রত্যাহার প্রক্রিয়া স্যালমোনেলা ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ রুখতে পারেনি। এরইমধ্যে কেবলমাত্র ফ্রান্সের স্যালমোনেলা ব্যাকটেরিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে ৩৫ জন, আর স্পেনে আক্রান্ত হয়েছে ১ জন। শুক্রবার ফরাসি কর্তৃপক্ষ জানায়, গ্রিসে আরেকজন সম্ভাব্য আক্রান্তকে পরীক্ষা করা হচ্ছে।

ল্যাকটালিস কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এমানুয়েল বেসনিয়ের বলেন, ইউরোপ, এশিয়া, ল্যাটিন আমেরিকা ও আফ্রিকার যেসব দেশে এর প্রভাব পড়েছে সেগুলোকে এরইমধ্যে এই ব্যাপারে অবহিত করা হয়েছে। তবে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়ায় এর প্রভাব পড়েনি বলে দাবি করেন তিনি।

এদিকে কারখানায় ব্যাকটেরিয়ায় প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়ার খবর ল্যাকটালিস কর্তৃপক্ষ আড়াল করতে চাইছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে ফরাসি সংবাদপত্র জার্নাল দু দিমানচেকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ল্যাকটালিসের প্রধান নির্বাহী তা অস্বীকার করেছেন।

তিনি বলেন, ‘এই ব্যাপারে অভিযোগ রয়েছে এবং আমরা তা তদন্ত করব। এক্ষেত্রে আমরা পূর্ণাঙ্গ সহযোগিতা দেব।’

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে সহযোগিতা প্রদানেরও আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত বছরের শেষের দিকে বেশ কয়েকজন অভিভাবক ল্যাক্টালিস নামের ওই কোম্পানির বিরুদ্ধে মামলা করেন। তাদের অভিযোগ, ওই কোম্পানির তৈরি শিশুখাদ্য খেয়ে তাদের বাচ্চারা অসুস্থ বোধ করছে। এরপর ডিসেম্বরে কারখানা পরীক্ষার সময় সেখানে স্যালমোনেলা জীবাণুর অস্তিত্ব পাওয়া যায়।

তখনই বাজারে থাকা ১ কোটি ২০ লাখের মতো গুঁড়ো দুধের বাক্স তুলে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ল্যাক্টালিস কর্তৃপক্ষ। কেননা এই জীবাণু সংক্রমিত খাবার খেলে বিষক্রিয়া হতে পারে। আর শিশুদের জন্য এটা আরও বিপজ্জনক। বিশেষ করে ছোট শিশুদের জন্য স্যালমোনেলা প্রাণঘাতী হতে পারে।

স্যালমোনেলার আক্রমণে তীব্র ডায়রিয়া, পেট ব্যথা, বমি এবং প্রকট পানিস্বল্পতা হতে পারে।

ট্যাগ: Banglanewspaper ল্যাকটালিস ঝুঁকি