banglanewspaper

নাজমুস সাকিব মুন, পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি : পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে আলোচিত শ্রী শ্রী সন্ত গৌড়ীয় মঠের পুরোহিত যজ্ঞেশ্বর দাসাধিকারী হত্যাকান্ডে পৃথকভাবে দায়ের করা অস্ত্র ও বিস্ফোরক মামলার ২য় দফায় স্বাক্ষ্য গ্রহন করা হয়েছে।

সোমবার (১৫ জানুয়ারী) সকালে পঞ্চগড় জেলা ও দায়রা জজ আবু মনসুর মো. জিয়াউল হক এর আদালতে ১০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহন করা হয়। সাক্ষ্য গ্রহণের সময় শীর্ষ জেএমবি সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেন ওরফে রাজিব গান্ধী, আলমগীর হোসেন, রমজান আলী, খলিলুর রহমান ও হারেস আলীকে আদালতে হাজির করা হয়।

স্বাক্ষ্য গ্রহন শেষে কড়া নিরাপত্তায় তাদের আবারও জেল হাজতে পাঠানো হয়।

গত বছরের ৮ নভেম্বর ৬ জনের স্বাক্ষী প্রদানের মাধ্যমে ওই হত্যাকান্ডের মামলার স্বাক্ষ্য গ্রহনের শুরু হয়।

২০১৬ সালের ২১ ফেব্রুয়ারী সকালে পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলায় শ্রীশ্রী সন্ত গৌড়ীয় মঠের পুরোহিত যজ্ঞেশ্বর দাসাধিকারীকে গলাকেটে হত্যা করে জেএমবি সদস্যরা। এ ঘটনায় ১০ জনকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের বড়ভাই রবীন্দ্রনাথ রায়। পরে অস্ত্র ও বিস্ফোরক আইনে আরও দুটি মামলা দায়ের করে দেবীগঞ্জ থানা পুলিশ। পুলিশের দায়ের করা দুই মামলায় ১০ জনকে অভিযুক্ত করে ২০১৬ সালের ১৬ জুন আদালতে চার্জশিট দাখিল করা হয়।

১০ আসামীর মধ্যে ৪ জন বিভিন্ন স্থানে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে বন্দুক যুদ্ধে নিহত হয়। রানা নামে অপর আসামী জেএমবি সদস্য এখনো পলাতক রয়েছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

পঞ্চগড় জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট আমিনুর রহমান জানান, দেবীগঞ্জের যজ্ঞেশ্বর দাসাধিকারী হত্যা মামলায় অস্ত্র ও বিস্ফোরক মামলার ১০ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহন করা হয়েছে। এর আগে আরও ৬ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে। আদালত স্বাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আদালত আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারি আবারও স্বাক্ষ্য গ্রহণের জন্য তারিখ নির্ধারণ করেছেন।

ট্যাগ: Banglanewspaper পঞ্চগড় জেএমবি আদালত