banglanewspaper

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রে ক্ষেপনাস্ত্র হামলা হতে যাচ্ছে, এমন ভুয়া সতর্কবার্তা জারির দুদিন না পেরোতেই এবার জাপানে ক্ষেপনাস্ত্র হামলার ভুয়া খবর ছড়িয়ে পড়েছে। জাপান সরকার নিয়ন্ত্রিত সম্প্রচার মাধ্যম এনএইচকে- এর ব্রেকিং নিউজে এই সতর্ক বার্তা প্রচার করা হয়।

ওই ব্রেকিং নিউজে বলা হয়, উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপনাস্ত্র আজ মঙ্গলবার দেশটিতে আঘাত হানবে। এরপর এনএইচকে’র এক ওয়েবসাইটেও এই সতর্ক বার্তা জারি করা হয়। তবে এর কয়েক মিনিট পরই ওই ভুল সতর্ক বার্তাটি তুলে নেয় এনএইচকে। 

এমন সময় ঘটলো যখন উত্তর কোরিয়া ও জাপানের মধ্যে সম্পর্ক ভালো যাচ্ছে না। তবে এখনও জানা যায়নি কেনো এরকম একটি ঘটনা ঘটলো।

 

এর আগে গত শনিবার সকালে যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই রাজ্যে মোবাইল, টেলিভিশন ও রেডিওতে একযোগে মিসাইল হামলার একটি ভুল সতর্কবার্তা ছড়িয়ে পড়ার পর রাজ্যজুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

রাজ্যের প্রায় সবার মোবাইল ফোনে পাঠানো ওই বার্তায় বলা হয়, ‘হাওয়াইয়ের দিকে মিসাইল ছুটে আসছে, আপনারা প্রত্যেকেই এখনই নিরাপদ আশ্রয়ে অবস্থান করুন। এটা মোটেই পরীক্ষামূলক না।’

আর এরপরেই পুরো রাজ্যের পরিস্থিতি অস্বাভাবিক হয়ে ওঠে। অধিকাংশ বাসিন্দা মনে করেছিল মিসাইলটি উত্তর কোরিয়া থেকে ছুটে আসছে। কারণ গত বছরের ডিসেম্বরে উত্তর কোরিয়া স্নায়ুযুদ্ধের অংশ হিসেবে মিসাইল পরীক্ষা চালিয়ে ঘোষণা দেয় তাদের মিসাইলটি হাওয়াই রাজ্যে হামলা চালাতে সক্ষম। তখন থেকেই রাজ্যটিতে সতর্কাবস্থা চালু করা হয়।

এ ঘটনার পরপরই রাজ্যটির বাসিন্দারা নিরাপত্তার জন্য নিজেদের বাড়িতে নিরাপদ জায়গায় অবস্থান নিতে থাকে। কেউ বাথরুমে, কেউ বাথটবে গিয়ে অবস্থান করে। আবার কেউ কেউ প্রাণপণে নিরাপদ জায়গার জন্য ছুটতে শুরু করে। ঘটনার পর এই হয়রানির জন্য রাজ্যের বাসিন্দারা বিভিন্নভাবে ক্ষোভ প্রকাশ করে।

ঘটনার বেশ কিছুক্ষণ পর রাজ্যের গভর্নর ডেভিড আইজ দুঃখ প্রকাশ করে জানান, একজন কর্মী অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে ভুল বোতাম চাপ দেওয়ার কারণে ওই ঘটনা ঘটে। একইসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র সরকার এ ঘটনা তদন্ত করে দেখার ঘোষণা দেয়।

ট্যাগ: Banglanewspaper জাপান মিসাইল