banglanewspaper

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রাশিয়ার কাছে রয়েছে এক গোপন ড্রোন সাবমেরিন, যা বিশ্বের সবথেকে বড় নিউক্লিয়ার ওয়ারহেড বহনে সক্ষম। পেন্টাগনের এক ফাঁস হওয়া রিপোর্টে এমনটাই জানা গেছে। এর আগে রাশিয়ার কাছে আন্ডারওয়াটার নিউক্লিয়ার কেরিয়ার আছে বলে জানা গিয়েছিল। তবে এবার পেন্টাগনের লিক হওয়া রিপোর্টে সেই তথ্যই আরো স্পষ্ট হলো।

রিপোর্টে জানা গেছে, ওই ড্রোন সাবমেরিন ১০০ মেগাটন ওয়ারহেড বহনে সক্ষম। ‘হাফিংটন পোস্ট’-এ প্রথম প্রকাশিত হয় এই রিপোর্ট। পেন্টাগনের দাবি, একদিকে যখন আমেরিকা পরমাণু অস্ত্রের ব্যবহার কমানোর উপর জোর দিচ্ছে অন্যদিকে তখন রাশিয়া তাদের পরমাণু শক্তি বাড়িয়ে চলেছে।

রাশিয়ার পাঁচটি নতুন নিউক্লিয়ার ডেলিভারি সিস্টেমের মধ্যে একটি হলো ‘Status-6 AUV’. AUV-এর অর্থ হলো ‘autonomous underwater vehicle’, অর্থাৎ সাধারণ ভাষায় যাকে ড্রোন সাবমেরিন বলে বর্ণনা করা যেতে পারে। পেন্টাগনের দেওয়া কোড নেম হলো Kanyon. ২০১৬ থেকে এটি রাশিয়ার কাছে আছে বলে জানা গিয়েছে। এই সাবমেরিনের রেঞ্জ হল ৬২০০ মাইল। আমেরিকা পর্যন্ত পরমাণু অস্ত্র বহনে সক্ষম এটি।

ওই নথিতে আরো বলা হয়েছে যে, রাশিয়া নতুন নিউক্লিয়ার ওয়াহেড ও লঞ্চার নিয়ে আসছে। এছাড়া তৈরি করছে দুটি রেঞ্জ সিস্টেম, হাইপারসনিক ভেইকল ইত্যাদি। অটোনমাস টর্পেডোও বানাচ্ছে রাশিয়া।

ট্যাগ: Banglanewspaper রাশিয়া ড্রোন সাবমেরিন পেন্টাগন