banglanewspaper

হুমায়ুন কবির, কুমারখালী: খোকসাকে মডেল বানাতে শিক্ষার বিকল্প নাই। সর্ব অবস্থায় প্রত্যেকটি নাগরিককে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে খোকসা জানিপুর পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া, অভিভাবক সমাবেশ ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে খোকসা উপজেলা চেয়ারম্যান সদর খান একথা বলেন। 

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ নাজমুল হুদা, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মারুফ আহমেদ, সাবেক খোকসা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ফজলুল হক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বেদবারিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাবুল আক্তার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও খোকসা পৌর মেয়র প্রভাষক তারিকুল ইসলাম তারিক, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ফজলুল হক।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি আরো বলেন, শিক্ষা ক্ষেত্রে কোন অবস্থায় আপস করা হবে না। সর্ব অবস্থায় প্রত্যেকটি নাগরিককে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে। আমাদের সন্তানদের শিক্ষিত হলে আগামী দিনের ভবিষ্যৎ জাতি গঠন হবে উন্নয়নের রোল মডেল।

তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার শিক্ষা ক্ষেত্রে যুগান্তকারী উন্নয়ন সাধিত করেছে, আর এ ধারাবাহিকতা রক্ষায় সকলকে আগামী নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট দিতে হবে। 

প্রসঙ্গত, ১১৮ বছরের পুরাতন খোকসা জানিপুর পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় ঐতিহ্য লালিত প্রতিষ্ঠানে বৃহস্পতিবার দুপুরে শিক্ষক শিক্ষার্থী অভিভাবক ও সাধারণ মানুষের মিলন মেলায় পরিণত হয়েছিল। বিদ্যালয়ের সাবেক বর্তমান শিক্ষার্থীদের মিলন মেলায় পরিণত হয়েছিল।

সভাপতির বক্তৃতায় মোহাম্মদ আলী বলেন, বর্তমান বিদ্যালয়ের সভাপতি ও সকলের শ্রদ্ধাভাজন ব্যক্তিত্ব আনা সদর উদ্দিন খান যেন "তেলেসমাতি কারিশমা নেতা" এখন বতমানে। বিদ্যালয়ের বর্তমান ও পূর্বের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড তুলে ধরে তিনি বলেন, বর্তমান সভাপতি যে বিষয়ে হাত দিয়েছেন সে বিষয়েই উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে।

তিনি আরো বলেন বর্তমান সভাপতির হাত ধরেই খোকসা জানিপুর পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি সরকারীকরণ হয়েছে। এটা খোকসা বাসীর জন্য অহংকার ও গৌরবের বিষয়।

গৌরবমন্ডিত এই অনুষ্ঠানে বক্তারা আরো বলেন, অভিভাবক সন্তান এবং শিক্ষকদের সমন্বয় সাধনে একটি পূর্ণাঙ্গ শিক্ষা ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত হয়। নিজেদের সন্তানকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করতে আপনাদের সর্বোচ্চ বিনিয়োগ প্রদান করুন, আর সেটা শিক্ষায় হতে পারে সর্বোচ্চ বিনিয়োগ।

প্রতিদিনের খাদ্যতালিকা রুটিন যেমন থাকে তেমনি প্রত্যেকটি সন্তানের প্রতি দিনের কোথায় কি করল সে রুটিনটা তাজা রাখা উচিত। বক্তারা আরো বলেন, লেখাপড়ার পাশাপাশি নিয়মিত খেলাধুলা করলে শরীর ও মন ভালো থাকে, সেজন্য শিক্ষার্থীদের খেলাধুলার পার মনোনিবেশ করলে মাদক থেকে মুক্ত রাখা যায়।

খোকসা জানিপুর পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এবার চার শতাধিক শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে। এই শিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানে সকলকে ফুল দিয়ে বরণ করা হয় এবং পরে তাদেরকে বিদায় অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিদায় দেওয়া হয়।

ট্যাগ: Banglanewspaper খোকসা সদর খান