banglanewspaper

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মা হচ্ছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন। আগামী জুনে তার ও সঙ্গী ক্লার্ক গাইফোর্ডের ঘর আলোকিত করে আসবে এ সন্তান।

প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন গর্ভধারণের এ ঘটনা দেশটিতে একটি নজির হতে চলেছে।

একটি ই-মেইল বার্তায় জাসিন্ডা আরডার্ন জানান, সন্তান জন্মের পর ছয় সপ্তাহ ছুটি নেবেন। আর এ সময় দায়িত্ব পালন করবেন ডেপুটি প্রধানমন্ত্রী ইউন্সটন পিটার। তবে ছুটি শেষে যথারীতি কাজে ফেরার কথাও জানিয়েছেন বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ এই প্রধানমন্ত্রী।

ফেসবুকে একটি পোস্টে নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ক্লার্ক ও  আমি খুবই উচ্ছ্বসিত। আমাদের দলের সদস্য সংখ্যা দুই থেকে তিনে দাঁড়াবে।’  তিনি আরো বলেন, ‘আমি হব প্রধানমন্ত্রী ও মা। আর ক্লার্ক বাসায় থাকবে।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে জাসিন্ডা আরডার্ন বলেন, ‘আমিই প্রথম নারী নই যে একসঙ্গে অনেক কাজ করি। এসব কাজে অনেক নারীই রয়েছেন, যারা খুব ভালোভাবেই এসব করতে পেরেছেন।’

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী হবো এটা জানার মাত্র ছয়দিন আগে জানতে পারি যে আমি গর্ভবতী। বাচ্চা হওয়ার পর তিনি যখন ছুটিতে যাবেন তখনও তার সঙ্গে যোগাযোগ করা যাবে এবং তাকে সবসময় পাওয়া যাবে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুক্রবার নিজের গর্ভবতী হওয়ার খবর জানানোর পর প্রচুর শুভকামনা পেয়েছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গেল অক্টোবরে জোট গঠন করে ক্ষমতায় আসার পর ৩৭ বছর বয়সী জাসিন্ডা আরডার্নই ১৮৫৬ সালের পর নিউজিল্যান্ডের সর্বকনিষ্ঠ প্রধানমন্ত্রী হন। গত সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে আরডার্নের লেবার পার্টি দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল। ওই নির্বাচনে কোনো দলই এককভাবে সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত করতে পারেনি। নিউজিল্যান্ড ফার্স্ট পার্টির নেতা উইনস্টন পিটারের সমর্থন নিয়ে সরকার গঠন করেন জাসিন্ডা আরডার্ন।

তার স্বামী ক্লার্ক গ্যাফোর্ড নিউজিল্যান্ডের একটি টেলিভিশনে রান্নাবিষয়ক অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন।

ট্যাগ: Banglanewspaper মা প্রধানমন্ত্রী নিউজিল্যান্ড