banglanewspaper

ভিট-চ্যানেল আই টপ মডেল প্রতিযোগিতায় মুকুট জিতলেন গাজীপুরের মেয়ে সুমাইয়া আঞ্জুম মিথিলা। পুরস্কার হিসেবে গাজীপুরের এই মেয়ে পাচ্ছেন ইমপ্রেস টেলিফিল্ম লিমিটেডের ছবিতে অভিনয় করা ও ভিট সামগ্রীর মডেল হওয়ার সুযোগ। এ ছাড়া পুরস্কার হিসেবে তার হাতে পাঁচ লাখ টাকার চেক তুলে দেন রেকিট বেনকিজার বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ক্লাস্টারের সিওও অ্যান্ড ফিন্যান্স ডিরেক্টর নয়ন মুখোপাধ্যায় এবং ইমপ্রেস টেলিফিল্ম লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর।

২৩ জানুয়ারি সন্ধ্যায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালে অনু্ষ্ঠিত হয়। জাঁকজমকপূর্ণ এই আয়োজনে তারকাদের পাশাপাশি প্রতিযোগিতার শীর্ষ ১৫ জন তরুণী নানা পরিবেশনায় অংশ নেন। অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করে চ্যানেল আই।

প্রতিযোগিতায় প্রথম রানারআপ হয়েছেন সামিয়া ইসলাম লামিয়া। ৩ লাখ টাকা পুরস্কারের পাশাপাশি তিনি পাবেন ১০টি টেলিছবি এবং ১০টি নাটকে অভিনয়ের সুযোগ। দ্বিতীয় রানারআপ জান্নাতুন নূর মুন ২ লাখ টাকা পুরস্কারের পাশাপাশি ৫টি টেলিছবি এবং ৫টি নাটকে অভিনয়ের সুযোগ পাবেন। মিস ভিট কনজেনিয়ালিটি, মিস ভিট বিউটি ফুলস্কিন এবং মিস ভিট বিউটিফুল স্মাইল বিজয়ীরা পেয়েছেন ১লাখ টাকা করে পুরস্কার।


এবার ছিলো ‘ভিট-চ্যানেল আই টপ মডেল’-এর তৃতীয় আসর। এবারের প্রতিযোগিতায় শুরু হয় গত বছরের সেপ্টেম্বরে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ৭ হাজারেরও বেশি তরুণী নাম নিবন্ধন করেছিলেন। সেখান থেকে ২৫০ জনকে বেছে নেওয়া হয় অডিশন রাউন্ডের জন্য। মূল পর্বের জন্য বেছে নেওয়া হয় ২০ জন প্রতিযোগীকে। ফ্যাশন বিশেষজ্ঞদের পরিচালনায় বিভিন্ন গ্রুমিং সেশনের মধ্য দিয়ে তাদের প্রতিভাকে বিকশিত করে তোলার সুযোগ করে দেওয়া হয়।

বাছাই পর্ব পেরিয়ে ফাইনালে পৌঁছান ৫ জন প্রতিযোগী। আন্তর্জাতিক ফ্যাশন জগতের অভিজ্ঞতা লাভের জন্য এবারের মৌসুমে শীর্ষ ৭ জন প্রতিযোগীকে শ্রীলঙ্কায় নিয়ে যাওয়া হয় । প্রতিযোগিতায় প্রধান তিন বিচারকের দায়িত্ব পালন করেছেন মডেল-অভিনেতা নোবেল, মডেল-অভিনেত্রী-নির্মাতা তানিয়া আহমেদ ও রূপ বিশেষজ্ঞ কানিজ আলমাস খান।

ট্যাগ: