banglanewspaper

প্রতি বছর ২ ফেব্রুয়ারি পরিবেশের ভারসাম্য বজায় রাখতে এবং জনসংখ্যার চাপে জলাভূমি ও এর জীববৈচিত্র্যের প্রতি হুমকি বৃদ্ধির প্রতি মনোযোগ আকর্ষণে বিশ্ব 'জলাভূমি দিবস' পালিত হয়। এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য হচ্ছে “স্থায়ীত্বশীল ভবিষ্যত নগরীর জন্য জলাভূমি”। বাস্তুসংস্থান, জীববৈচিত্র্য এবং এক বিরাট জনগোষ্ঠীর জীবনযাত্রা ও ভবিষ্যৎ সম্ভাবনা নির্ভর করে পানির উপর। আর এই পানির বেশিরভাগই আসে বিভিন্ন জলাভূমি থেকে। কাজেই এই জলাভূমি সংরক্ষণ ও সুষ্ঠু ব্যবহারের ওপর আমাদের সচেতন হওয়া প্রয়োজন।

১ ফেব্রুয়ারি বিকাল ৩টায় পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগ, স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ, পরিবেশ উদ্যোগ এবং ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্ট এর উদ্যোগে বিশ্ব জলাভূমি দিবস উপলক্ষ্যে স্থায়ীত্বশীল ভবিষ্যত নগরীর জন্য জলাভূমি রক্ষা করার দাবিতে বসিলা থেকে গাবতলী পর্যন্ত পরিদর্শন কর্মসূচি থেকে বক্তারা এ অভিমত ব্যক্ত করেন।

পরিদর্শনে দেখা যায় বছিলা থেকে গাবতলী পর্যন্ত নদীর দুইপাশ নানাভাবে দখল এবং দূষণের শিকার। কর্তৃপক্ষের নদীর সীমানা পিলার অতিক্রম করে অনেকেই নানা রকম স্থাপনা তৈরি করেছেন। অনেক জায়গায় সীমানা পিলার তুলে ফেলা হয়েছে, পয়ঃবর্জ্য ও শিল্প বর্জ্য সরাসরি পানিতে ফেলা হচ্ছে। যার ফলে পানি এতটাই দূষিত যে পরিদর্শন চলাকালানীর সম্পূর্ণ সময়ে নাকে রুমাল দিয়ে রাখতে হয়েছে। কর্মসূচি থেকে বলা হয় গত এক যুগে এই জলাভূমি ও নিম্নাঞ্চলের ৯০ শতাংশ ভরাট হয়ে গেছে। ঢাকার চারপাশের নদীগুলোও আজ ভরাট আর শিল্পবর্জ্যরে দূষিত হয়ে গেছে। শুধু যে রাজধানীর খাল-নদী সংকটাপন্ন তা নয়, দেশের নদ-নদী ও জলাভূমিগুলো আজ সংকটাপন্ন। জলাভূমিগুলোতেই যদি জল না থাকে তাহলে কৃষি উৎপাদন ব্যাহত হবে। আর কৃষি উৎপাদন ব্যাহত হলে দেখা দেবে খাদ্যের অনিশ্চয়তা। পাশাপাশি ভবিষ্যৎ প্রজন্মের অস্তিত্ব হুমকির সম্মুখীন হবে।

পরিদর্শন কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের যুগ্ম সম্পাদক মিহির বিশ্বাস, স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আহমদ কামরুজ্জামান মজুমদার, ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্ট এর প্রোগ্রাম ম্যানেজার মারুফ হোসেন, ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার নাজনীন কবির, প্রকল্প কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান, সহকারি প্রকল্প কর্মকর্তা মোঃ আতিুকর রহমান এবং স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীবৃন্দ। পরিদর্শন শেষে উপস্থিত সকলে দেশের সকল জলাশয় এবং পরিবেশ রক্ষার শপথ গ্রহণ করেন।

ট্যাগ: Banglanewspaper জলাভূমি দূষণ