banglanewspaper

মোস্তফা ইমরান রাজু, মালয়েশিয়া: বিগেস্ট ইকো-ফ্রেন্ডলি মসকিটো ট্রাপ বানানোর মাধ্যমে প্রথম বাংলাদেশী হিসাবে মালয়েশিয়ান বুক অব রেকর্ডসে জায়গা করে নিলেন এইচইসি মসকিটো কিলারের উদ্ভাবক এম এ হামিদ।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় পরিবেশবান্ধব ‘মসকিটো ট্রাপ’ বা মসা মারার ফাঁদ বানিয়ে মালয়েশিয়ান বুক অব রেকর্ডসে নাম লিখিয়েছেন তিনি। ৬ দশমিক ৩৪ মিটার উচু ও ৩ দশমিক ৪ মিটির চওড়া ইকো ফ্রেন্ডলি মসকিটো ট্রাপ বানানোর মাধ্যমে তিনি এ তালিকায় অন্তর্ভূক্ত হলেন।

মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুরের চেরাসে টুফাম ব্রাদার্স আয়োজিত এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শুক্রবার বিকাল তিনটায় এর কার্যকারিতা ও উচ্চতা পরিমাপের পর রেকর্ডবুকে স্থান পাওয়ার  বিষয়টি নিশ্চিত করে, মালয়েশিয়ান বুক অব রেকর্ডস কর্তৃপক্ষ। 'মালেয়শিয়া বুক অফ রেকর্ডস' কতৃপক্ষের জৈষ্ঠ্য কর্মকর্তা নুর আশিকিনী রামলি এম এ হামিদের হাতে রেকর্ডসের সনদ হস্তান্তর করেন।

এ সময় যন্ত্রটি প্রদর্শনী অনুষ্ঠানের আয়োজক টু-ফাম ব্রাদার্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রতন সেন ও টুফ্যাম ফ্যাশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মিনহাজ উদ্দিন মিরান, বিকে সুরিয়ার ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাফিদা রামলি অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন।

সবচেয়ে বড় পরিবেশবান্ধব বলে  মালয়েশিয়ান বুক অব  রেকর্ড এ স্বীকৃতি দিয়েছেন  বলে  মন্তব্য  করেছেন দ্যা মালয়েশিয়ান বুক  অফ  রেকর্ডস এর সিনিয়র রিসার্সার নুরআসিকিনি রামলি। 

বাংলাদেশী বিজ্ঞানী এম এ  হামিদ  বলেন পাঁচবছর ধরে গবেষণার ফসল আজ আমার এ স্বীকৃতি। এ প্রাপ্তি আমার ব্যাক্তিগত নয় পুরো বাংলাদেশের। খুব শিগগির-ই তার উদ্ভাবিত পরিবেশ বান্ধক এইচইসি মসকিটো ট্রাপ বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে বাজারজাতকরনের প্রক্রিয় চলছে বলে মন্তব্য করেন এম এ হামিদ।

বিজ্ঞানী হামিদের বাড়ি চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলার পোপাদিয়া গ্রামে। তার উদ্ভাবিত মশা মারার যন্ত্রটি গত বছরের ১০ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ সরকারের স্বীকৃতি পায়।

ট্যাগ: Banglanewspaper মালয়েশিয়া বাংলাদেশী বিজ্ঞানী