banglanewspaper

দ্বিতীয় বিমানবাহী রণতরী নির্মাণ শুরুর কথা স্বীকার করেছে চীন। দেশটির জাতীয় প্রতিরক্ষা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ও সিনিয়র কর্নেল লিয়াং ফেং একথা স্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, \'আমরা নিজেরাই যাতে বিমানবাহী রণতরী নির্মাণ করতে পারি সে লক্ষ্যেই প্রথম বিমানবাহী রণতরীটি আমদানি করা হয়েছিল এবং আমরা তা করেছি।\' নিজেদের তৈরি রণতরীটি আমদানিকৃত রণতরীর চেয়ে অনেক উন্নত হবে বলেও জানান তিনি।

এর আগে চীন ইউক্রেন থেকে সোভিয়েত আমলের একটি পুরোনো রণতরী আমদানির পর তা মেরামত করেছে। ২০১২ সাল থেকে তা প্রশিক্ষণের কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে।

এদিকে, যুক্তরাষ্ট্র চীনের প্রতিরক্ষা-ব্যয় বৃদ্ধি ও সামরিক সক্ষমতা বাড়ানো নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। এছাড়া চীনের সঙ্গে পানিসীমা নিয়ে যেসব দেশের বিরোধ রয়েছে সেসব দেশও বেইজিংয়ের সামরিক সক্ষমতা বৃদ্ধিতে উদ্বিগ্ন। তবে চীন বলে আসছে যে কোনো দেশের ওপর আগ্রাসন চালানোর জন্য নয় বরং দেশটির প্রতিরক্ষার লক্ষ্যে সামরিক শক্তি বাড়ানো হচ্ছে। খবর এএফপির

ট্যাগ: