banglanewspaper

অনলাইনে যেসব প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়, সেগুলোর বেশিরভাগই ভুয়া। কারণ আসল প্রশ্নপত্র ফাঁস হয় পরীক্ষা শুরু হওয়ার ৩০-৪০ মিনিট আগে।

রোববার দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ(ডিবি)।

শনিবার (১০ জানুয়ারি) রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগে আটক ১৪ জনের বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

আবদুল বাতেন বলেন, আসামিরা পরীক্ষার আগের দিন ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁস করে শিক্ষার্থীদের আস্থা অর্জন করে। পরেরদিন পরীক্ষা শুরুর ৩০-৪০ মিনিট আগে কেন্দ্র থেকে বিভিন্নভাবে প্রশ্ন সংগ্রহ করে। সেগুলো ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার, ইমো এবং হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপ থেকে শিক্ষার্থীদের কাছে এগুলো ছড়িয়ে দেয়া হয়। এর বিনিময়ে তারা বিকাশ ও রকেটের মাধ্যমে ৫০০ থেকে ২ হাজার টাকা আদায় করে।

'আমি শিওর, এই প্রশ্ন ফাঁসের পর যদি কেউ কেন্দ্র থেকে শিক্ষার্থীকে সহায়তা না করে তাহলে ওই শিক্ষার্থীর বেনিফিট পাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। কারণ তখন শিক্ষার্থীরা পরীক্ষার হলেই থাকে।

তৃণমূল পর্যায় থেকে অর্থাৎ পরীক্ষার কেন্দ্র থেকে কারা প্রশ্নের ছবি তুলে ফাঁস করছে, কারা এই চক্রের সঙ্গে জড়িত তাদের কাছে যাওয়া খুব কঠিন বলে দাবি করেন আব্দুল বাতেন।

ট্যাগ: banglanewspaper প্রশ্নফাঁস ডিবি