banglanewspaper

কুয়ালালামপুর (মালয়েশিয়া) প্রতিনিধি : স্বেচ্ছাচারিতা ও অসাংগঠনিক কার্যক্রমসহ নানা অভিযোগে বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের সংগঠন বাংলাদেশী স্টুডেন্ট'স ইউনিয়ন মালয়েশিয়া (বিএসইউএম) এর বর্তমান (২০১৭-১৮) কার্যকরি কমিটি বাতিল করেছে সংগঠনটির সাধারণ ছাত্র-ছাত্রী, উপদেষ্টা ও আজীবন সদস্যরা।

রবিবার রাজধানী কুয়ালালামপুরের রসনা বিলাস রেস্টুরেন্টে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পেশ করেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ও আজীবন সদস্য মো. রবিউল ইসলাম।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, সংগঠনের কার্যক্রমকে আরও বেগবান করতে এবং সাধারণ ছাত্রদের কল্যাণে কাজ করার অঙ্গীকার করে সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয় মো. জিয়াউর রহমানকে। দায়িত্ব পেয়ে জিয়াউর রহমান কয়েকজন সদস্যকে নিয়ে সংগঠনের নাম ভাঙ্গিয়ে নিজেদের আখের গোছাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। অলাভজনক এ সংগঠনকে ছাত্রদের কল্যাণে কাজে না লাগিয়ে বাণিজ্যিক কাজে ব্যবহার করতে থাকেন।

তিনি আরও বলেন, সংগঠনের সিনিয়র সদস্য, উপদেষ্টা ও আজীবন সদস্যদের মতামতকে গুরুত্ব না দিয়ে নিজের নাম এবং লোগো বদলেছেন। সংগঠনকে ওয়ানম্যান শো'তে পরিণত করেছেন।

লিখিত বক্তব্যে তিনি অভিযোগ করেন,

ক) বিএসইউএম এর গঠনতন্ত্র পরিবর্তন

খ) সংগঠন এর নাম পরিবর্তন

গ) সংগঠন এর লোগো পরিবর্তন

ঘ) ওয়েবসাইট নষ্ট করা

ঙ) বাংলাদেশি কমিউনিটির সুপরিচিত ব্যক্তিদের বাসায় ও অফিসে গিয়ে বাংলাদেশি ছাত্রদের অভিভাবক পরিচয় দিয়ে আর্থিক সুবিধা নেওয়া এবং সর্বপরি বিএসইউএম’কে অনৈতিক ও অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িত করা।

এসবের পরিপ্রেক্ষিতে বর্তমান সভাপতি মো. জিয়াউর রহমানকে ২৪ জানুয়ারী ২০১৮ ইং তারিখে কারন দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়। কিন্তু কোন সদুত্তর না পাওয়ায় বর্তমান কমিটির সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদককে উক্ত কারনে উপস্থিত সভার সম্মতিক্রমে BSUM থেকে বহিষ্কার  এবং উক্ত কমিটিকে বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়।

এছাড়া বাংলাদেশী স্টুডেন্ট'স ইউনিয়ন মালয়েশিয়ার আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি ঘোষণা করা হয়। কমিটির আহ্বায়ক মো. রবিউল ইসলাম ও সদস্য সচিব শেখ আরমান ও সদস্য হিসেবে মো. আব্দুল বাশির, অরুণিমা হোসাইন, নজরুল ইসলাম, মেহেদী হাসান ও মো. ঈসা রুহুল্লাহ। এই কমিটি আগামী ২ মাসের মধ্যে ২০১৮-১৯ সেশনের জন্য নতুন কমিটির নির্বাচনের ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

এছাড়াও সদ্য বিলুপ্ত ২০১৭-১৮ সেশনের কমিটির অনিয়মগুলোর তদন্ত করার জন্য অত্র সংগঠন এর আজীবন সদস্য মো. শামছুজ্জামান নাঈমকে আহ্বায়ক ও  আজীবন সদস্য কায়সার হামিদ হান্নান এবং সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক তরিকুল ইসলাম ও রায়হান কবির খানকে যুক্ত করে তদন্ত কমিটি করা হয়।

উক্ত কমিটি আগামী ৩ সপ্তাহের মধ্যে উপদেষ্টা ও আজীবন সদস্যদের নিকট তদন্ত রিপোর্ট জমা দেয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান।

ট্যাগ: banglanewspaper বিএসইউএম কমিটি মালয়েশিয়া