banglanewspaper

সদ্যোজাত সন্তানের জন্য সবচেয়ে পুষ্টিকর খাবার মাতৃদুগ্ধ। কিন্তু মায়ের বিভিন্ন শারীরিক সমস্যার কারণে অনেক সদ্যোজাতই অতিপ্রয়োজনীয় এই খাবার থেকে বঞ্চিত হয়। আবার বিপরীত ঘটনাও ঘটে। সন্তানের প্রয়োজনের তুলনায় শরীরে অতিরিক্ত দুধ তৈরি হওয়ায় সমস্যা পড়েন অনেক নারী।

সেক্ষেত্রে অতিরিক্ত স্তনদুগ্ধ দান করে সমস্যায় ভোগা মায়েদের সাহায্য করেন অনেকেই। কিন্তু দান নয়, অতিরিক্ত স্তনদুগ্ধ বিক্রি করে বাড়তি উপার্জনের ব্যবস্থা করেছেন সাইপ্রাসের ২৪ বছর বয়সী এক নারী। 

রাফেলা লামপ্রাউ নামের ওই নারীর সাত মাস আগে একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। মা হওয়ার কিছুদিনের মধ্যেই তিনি বুঝতে পারেন, সন্তানের প্রয়োজনের তুলনায় অনেক বেশি দুধ তৈরি হচ্ছে নিজের শরীরে। প্রথমে অতিরিক্ত দুধ কৃত্রিম উপায়ে সংরক্ষণের চেষ্টা করেন রাফেলা। কিন্তু তাতেও সমস্যার সমাধান হয়নি। প্রচুর পরিমাণে দুধ শরীরেই থেকে যাচ্ছিল।

এরপর অন্য নারীদের পথেই হাঁটা শুরু করেন রাফেলা। যেসব সদ্যোজাত মাতৃদুগ্ধ থেকে বঞ্চিত তাদের দুধ দান করতে শুরু করেন তিনি। 

এভাবে ভালোই দিন কাটছিল রাফেলার। কিন্তু তার অতিরিক্ত মাতৃদুগ্ধের কথা জানতে পেরে রাফেলার কাছে হাজির হন স্থানীয় কয়েকজন বডিবিল্ডার। রাফেলাকে অতিরিক্ত দুধ বিক্রির প্রস্তাব দেন তারা। প্রথমে সেই প্রস্তাবে কিছুটা দোটানায় পড়েন রাফেলা।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, প্রথমে বুঝতে পারছিলাম না কি করবো? কিন্তু ক্রমে আগ্রহীর সংখ্যা বাড়তে থাকায় খোঁজ নিয়ে জানতে পারি, বডি বিল্ডার্সদের মধ্যে মাতৃদুগ্ধের প্রচুর চাহিদা।এরপরই বুকের দুধ বিক্রির সিদ্ধান্ত নেই। 

তিনি জানান, সন্তান হওয়ার পর থেকে তার শরীরে প্রতিদিন প্রায় ২ লিটার দুধ তৈরি হয়। সন্তানকে খাওয়ানোর পর অতিরিক্ত দুধ প্রতিআউন্স ১ ডলার করে বডি বিল্ডারদের কাছে বিক্রি করেন তিনি।

রাফেলার দাবি, এখন পর্যন্ত ৫শ' লিটারের কাছাকাছি বুকের দুধ বিক্রি করে সাড়ে চার হাজার ডলার আয় করেছেন তিনি। বাড়তি আয় করে এখন স্বামী অ্যালেক্স ও দুই ছেলেকে নিয়ে আনন্দেই আছেন রাফেলা।

তিনি বলেন, বুকের দুধ বিক্রির বিষয়ে অন্যকে জানাতে প্রথমে একটি ফেসবুক গ্রুপ চালু করি। আর এখন দুধ বিক্রির জন্য আমাদের একটি ওয়েবসাইটও আছে।

রাফেলা আরও বলেন, প্রথমদিকে পুরুষ বিডি বিল্ডারদের কাছে বিক্রি করতে অস্বস্তি হত। এখন আর সেই সমস্যা হয় না। তারাতো আর আমার শরীরের কোনো অঙ্গ দেখছে না কিংবা স্পর্শও করছে না। 

বডি বিল্ডারদের কাছে বুকের দুধের চাহিদার কারণ হিসেবে ক্রীড়াবিদদের ফিটনেস বিশেষজ্ঞ ব্রায়ান স্টিফেন পেরি বলেন, বুকের দুধে প্রচুর ক্যালোরি ও পুষ্টি থাকায় বডি বিল্ডারদের কাছে এর চাহিদা বেশি। এছাড়াও মাতৃদুগ্ধে এমন কিছু উপাদান আছে যেগুলো মানবদেহের মাংসপেশির বৃদ্ধিকে ত্বরান্বিত করে। সূত্র: ইনডিপেনডেন্ট ডটকম ডট 

ট্যাগ: banglanewspaper বুকের দুধ বিক্রি