banglanewspaper

ক্রীড়া ডেস্ক : মাত্র এক ম্যাচ খেলেই টেস্ট ক্রিকেটকে বিদায় জানালেন নিউজিল্যান্ডের অলরাউন্ডার কলিন মানরো। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে অখণ্ড মনোযোগ দিতে সাদা পোশাক ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

পাঁচদিনের ক্রিকেটের প্রতি ‘টান’ কমে যাওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নিলেন ৩০ বছর বয়সী মানরো।

২০১৩ সালে পোর্ট এলিজাবেথে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে খেলেছিলেন ক্যারিয়োরের একমাত্র টেস্ট ম্যাচটি। লাল বলের ক্রিকেটে আর ডাক না পেলেও ওয়ানডে ও টি ২০-র টপঅর্ডারে এখন প্রতিষ্ঠিত এ কিউই তারকা। সবচেয়ে বেশি তিনটি টি ২০-র মালিক এখন তিনি।

এমনকি ঘরোয়া চারদিনের ম্যাচও খেলবেন না মানরো। তবে ৫০ ও ২০ ওভারের ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক মঞ্চে প্রতিনিধিত্ব করবেন। বিশ্বব্যাপী টি ২০ খেলতে গত বছর নিউজিল্যান্ডের কেন্দ্রীয় চুক্তি বাতিল করেছিলেন নিউজিল্যান্ডের পেস বোলার মিচেল ম্যাকক্লেনাঘান। তবে মানরো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের দিকেই বেশি মনোযোগী। তার চোখ এখন ২০১৯ বিশ্বকাপে,

‘এই মৌসুমে আমার মনোযোগ চারদিনের ক্রিকেটে নয়। এই ফরম্যাটের খেলায় টানটা আগের মতো নেই আর। ব্ল্যাকক্যাপ ও অকল্যান্ড এইচের হয়ে সীমিত ওভারের ক্রিকেট খেলতে শতভাগ প্রতিশ্র“তিবদ্ধ আমি। আগামী কয়েক বছরে বড় কিছু অর্জনের লক্ষ্য আমার। আগামী বছরের বিশ্বকাপ দলে জায়গা পেতে আমি সেরা চেষ্টা করব।’ বলেন তিনি।

ট্যাগ: banglanewspaper টেস্ট ক্রিকেট মানরো