banglanewspaper

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন পাবেন কি না সেটি জানা যাবে আজ।

বেলা ২টায় হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দিবেন।

সোমবারের কার্যতালিকায় (কজলিস্টে) খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়টি দুই নম্বরে রয়েছে। এ মামলায় পাঁচ বছরের দণ্ড নিয়ে সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে আছেন।

রোববার সকালে জামিনের আদেশ দেয়ার সময় পর্যন্ত বিচারিক আদালতের নথি হাইকোর্টে না পৌঁছায় হাইকোর্টের ওই বেঞ্চ সোমবার দিন ধার্য করেন।

রোববারের কার্যতালিকায় (কজলিস্টে) খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়টি এক নম্বরে ছিল। সকাল সাড়ে ১০টায় বেঞ্চের দুই বিচারপতি আসনগ্রহণের পর অন্যান্য মামলার ম্যানশন করেন আইনজীবীরা। এরপর ঘড়ির কাঁটায় যখন ১১টা ৪৪ মিনিট তখন খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বলেন, সর্বোচ্চ আদালতের দীর্ঘ প্রথা ও এখতিয়ার আছে নথি ছাড়াই জামিন দেয়ার। আমরা চাই আজই জামিনের বিষয়ে আদেশ দেন।

এ সময় আদালত বলেন, এখতিয়ার আছে ঠিক। আমরা নথির জন্য আদেশ দিয়েছিলাম গত ২২ ফেব্রুয়ারি। বিচারিক আদালত আদেশের কপি হয়তো পেয়েছেন ২৫ ফেব্রুয়ারি। সে হিসেবে আজ ১৫ দিন শেষ হচ্ছে।

জয়নুল আবেদীন বলেন, ২২ ফেব্রুয়ারি আদেশের কপি বিচারিক আদালতে পৌঁছায়। সেই হিসেবে ১৫ দিন পার হয়ে গেছে আগেই। আদালত বলেন, ‘আমার মনে হয় আজকের দিনটি আমরা দেখি। আদেশের জন্য সোমবার বিকেলে রাখলাম।’

তবে ওই বেঞ্চ সোমবার দিন ধার্য করার পর খালেদা জিয়াকে দেয়া নিম্ন আদালতের রায়ের নথি রোববার দুপুর ১২টা ৫৫ মিনিটে উচ্চ আদালতে পৌঁছে। নথির মোট পৃষ্ঠা সংখ্যা ৫৩৭৩।

খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়ে আদালত কী আদেশ দেন, তিনি (খালেদা জিয়া) কারামুক্ত হতে পারবেন কি না- তা জানার জন্য সবাই এখন আদালতের দিকে তাকিয়ে আছেন।

ট্যাগ: banglanewspaper খালেদা জামিন