banglanewspaper

ভাষা সৈনিক, মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক সংসদ সদস্য এবং সাবেক রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহ আবদুর রাজ্জাক খন্দকার ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি...রাজিঊন)।

সোমবার ভোরে বার্ধক্যজনিত কারণে রংপুরের মাহিগঞ্জ সাতমাথা এলাকায় নিজ বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। তিনি ৩ ছেলে ও ২ মেয়ে রেখে গেছেন।

বায়ান্নর মহান ভাষা আন্দোলনে রংপুরে যারা সক্রিয় ভূমিকা রেখেছিলেন তাদের মধ্যে অন্যতম শাহ্ আবদুর রাজ্জাক খন্দকার। ১৯৭১ সালে দেশ স্বাধীনের জন্য মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েন। স্বাধীনতার পর তিনি রংপুরের পীরগাছা-কাউনিয়া আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন।

২০১৪ সালে স্ত্রী মহিলা আওয়ামী লীগ সাবেক সভানেত্রী ও রংপুর জেলা পরিষদ প্রশাসক রেজিনা রাজ্জাকের মৃত্যুর পর অনেকটাই নিঃসঙ্গ হয়ে পড়েন আব্দুর রাজ্জাক খন্দকার। বেশিরভাগ সময় বাসা থেকে তেমন একটা বের হতেন না।

সোমবার আবদুর রাজ্জাকের মরদেহ সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত মাহিগঞ্জ গ্লাস ফ্যাক্টরি মাঠে রাখা হয়। সেখানে তাঁর প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর রংপুর পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। রংপুরের পীরগাছা গ্রামের বাড়িতে তৃতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে শাহ আবদুর রাজ্জাক খন্দকারকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হবে।

শাহ আবদুর রাজ্জাক খন্দকারের মৃত্যুতে মাহিগঞ্জের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

ট্যাগ: banglanewspaper ভাষা সৈনিক মুক্তিযোদ্ধা