banglanewspaper

রাজধানীর মিরপুরের ইলিয়াস আলী মোল্লা বস্তির ভয়াবহ আগুনে পুড়ে গেছে আট হাজারের বেশি ঘর। আহত অবস্থায় এক নারীকে ভর্তি করা হয়েছে ঢাকা মেডিকেল।

আজ সোমবার ভোররাতে আগুন লাগে বস্তিতে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ২১টি ইউনিটের ৫ ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। বস্তির সরু গলি ও পানির স্বল্পতার কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণে বেশ বেগ পেতে হয় ফায়ার সার্ভিসকে। এ ধরণের আগুন নিয়ন্ত্রণে সবসেবা সংস্থাকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস।     

ভোররাত ৪টা। মিরপুর-১২ নম্বর সেকশনের ইলিয়াস আলী মোল্লা বস্তিতে হঠাৎ দাউ দাউ আগুন। মুহূর্তেই তা ছড়িয়ে পড়ে আশপাশের ঘরগুলোতে। কোনো রকমে প্রাণ নিয়ে বস্তিবাসী বেরিয়ে আসতে পারলেও পুড়ে যায় সহায়-সম্বল। আগুন নেভাতে প্রথমে ফায়ার সার্ভিসের ১৩টি, পরে যোগ দেয় আরো ৮টি ইউনিট। ভোর রাত কেটে সূর্যের আলো ফোটে, কিন্তু আগুনের লেলিহান শিখা নিয়ন্ত্রণে আসেনি। ততক্ষণে ছাই ভস্মে বস্তিবাসীর সম্বল।

কাঁদতে কাঁদতে নাসিম আলী বলেন, ‘আমার তিনডা ঘরই পুইড়া ছাই হইয়া গেছে। ঘরে কিছু জমানো টাহা আছিল। সেই টাকাগুলান পাইছি তাও আধপোড়া অবস্থায়। আর সব শেষ। স্বপ্নেও ভাবি নাই এমন হইবো, এহন কি করমু, কেমনে চলমু?’

মধ্যরাতের ভয়াবহ আগুনে নাসিমের মতো হাজার হাজার মানুষের স্বপ্ন নিমিষেই ছাই হয়ে গেছে।

নাসিম জানান, বস্তিতে আট হাজার ঘরে প্রায় ২৫ হাজার মানুষ বাস করতেন। তার মধ্যে অন্তত তিন হাজার ঘরই আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

কান্নাজড়িত কণ্ঠেই শ্রমজীবী আকবর বলেন, ‘সব পুইড়া গেছে, কিছুই নাই, রাতে কই যামু, কী খামু, কিছুই জানি না।’

এই বস্তির পুড়ে যাওয়া তিন হাজার বাড়িঘরের প্রায় সবারই দশা একই রকম। সহায়তা না পেলে এই মানুষদের পক্ষে ঘুরে দাঁড়ানো কঠিন হবে।

লিমা বেগম এই বস্তিতে আছেন প্রায় ২০ ধরে। তার স্বামী মো শামীম গার্ডের চাকরি করেন। অন্য অনেকের মতো লিমাও কিছু বের করতে পারেননি তার ঘর থেকে।

কাঁদতে কাঁদতে লিমা বলেন, ‘সব শেষ হয়া গেছে, সব শেষ, টেকা পয়সা নাই, কিছুই বাইর করতে পারি নাই। এহন কী হবে জানি না।’

লিমার দুর্দশার খবর শুনে তাকে সান্ত্বনা দিতে এসেছিলেন স্বজনরা। তাদের বেশভুষাই বলে দেয়, জীবন চালাতে গিয়ে সংগ্রামে তারা নিজেরাও। এই অবস্থায় তারা লিমাকে কতটা সহায়তা করতে পারবেন, সেটাও নিশ্চিত নয়।

অগ্নিকাণ্ডের কারণ খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ফায়ার সার্ভিস। সোমবার সকালে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স অধিদফতরের পরিচালক (অপারেশন অ্যান্ড মেইটেন্যান্স) মেজর এ কে এম শাকিল নেওয়াজ জানান।

তিনি বলেন, ইলিয়াস আলী মোল্লা বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার তদন্তে ফায়ার সার্ভিস সদর দফতরের উপ-পরিচালক দেবাশীষ বর্ধনকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

আগামী ৭ কার্য দিবসের মধ্যে কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলেও জানান শাকিল নেওয়াজ।

ট্যাগ: banglanewspaper মিরপুর বস্তি আগুন