banglanewspaper

নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে (টিআইএ) ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের যাত্রীবাহী একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। সোমবার নেপালের স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ২০ মিনিটে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে।

নেপালের স্থানীয় দৈনিক দ্য হিমালয় টাইমস বলছে, বিমান বিধ্বস্তের এ ঘটনায় প্রাণহানির শঙ্কা প্রকাশ করেছে টিআইএ।

টার্বোপ্রপ ইঞ্জিনচালিত এই বিমানটি রানওয়ের বদলে এয়ারপোর্টের একটি ফুটবল মাঠে দাঁড়িয়ে পড়ে। ঘটনায় এখনো প‌র্যন্ত ৩০ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। 

কাঠমান্ডুর ত্রিভূবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের সময় ঘটে যায় দুর্ঘটনাটি। রানওয়েতে নামার বদলে বিমানটি বাইরে চলে যায়। সঙ্গে সঙ্গেই আগুন লেগে যায় তাতে। এখনও পর্যন্ত ১৭জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় বিমানটি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। বাকিদের খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে। বিমানবন্দর সূত্রে খবর, বিমানটিতে ৭১ জন আরোহী ছিলেন। এদের মধ্যে ৪ জন চালক ও বিমানকর্মী। 

বিমানবন্দরের আরেক মুখপাত্র বিরেন্দ্র প্রসাদ শ্রেষ্ঠ এনডিটিভিকে বলেন, বিমানে থাকা অন্য আরোহীদের অবস্থা এখনো জানা যায়নি। তিনি বলেন, ‘আমরা আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছি।’

ঢাকায় ইউএস বাংলার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ইমরান আসিফ বলেন, ‘আমরা খবর পেয়েছি। বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছি।’

বিমানটি ভেঙে পড়তেই উদ্ধারকাজে নামে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। উদ্ধার করা হয় ‌একাধিক ‌যাত্রীকে। ঘটনাস্থল ঘিরে রেখেছেন নিরাপত্তারক্ষীরা।

ইতিমধ্যেই দুর্ঘটনার সেই ছবি সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে দমকল। চেষ্টা চলছে আগুন নেভানোর। বিমানটি ১৭ বছরের পুরনো বলে জান গিয়েছে। তবে এখনও দুর্ঘটনার কারণ স্পষ্ট নয়।

 

ট্যাগ: banglanewspaper নেপাল ইউএস বিমান বিধ্বস্ত